ভল্টে দুর্ঘটনা, বাইলস সরে যেতেই সোনাও হাতছাড়া যুক্তরাষ্ট্রের

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ১০:০৯ পিএম, ২৭ জুলাই ২০২১

রিও ডি জেনিরোতে গত অলিম্পিকে যুক্তরাষ্ট্রকে চার সোনা এনে দেয়া সিমোন বাইলস এবার ভল্ট নিতে গিয়েই পড়লেন দুর্ঘটনায়। পায়ে চোট পেয়ে সরে গেলেন আর্টিস্টিক জিমন্যাসটিক্সের দলগত ফাইনাল থেকে।

তাতেই ২০১০ সালের পর এবারই প্রথম ওয়ার্ল্ড ও অলিম্পিক আসরে নারী জিমন্যাসটিক্সের দলগত ইভেন্টে সোনা হাতছাড়া হলো যুক্তরাষ্ট্রের। সেই সুযোগে শীর্ষস্থান নিয়ে নিল রাশিয়ান অলিম্পিক কমিটি। ব্রোঞ্জ পেয়েছে গ্রেট ব্রিটেন।

২৪ বছরের সিমোন বাইলসকেই সর্বকালের সেরা জিমন্যাস্ট হিসেবে ধরা হয়ে থাকে। তার পারফরম্যান্সের মান এতটাই উঁচুতে তিনি নিয়ে গিয়েছেন, সেখানে টোকিও অলিম্পিকের যোগ্যতা অর্জনের সময়ও নিজের চেনা ছন্দের ধারেকাছে ছিলেন না। তবে গত ২৫ জুলাই আর্টিস্টিক জিমন্যাস্টিক্সের মহিলাদের ভল্টের সাবডিভিশন ৩-এও শীর্ষস্থান দখলে রেখেছিলেন বাইলস।

আজ ফাইনালের সময় সেই ভল্টেই বিপত্তি। প্রথম ভল্টে বাইলসের স্কোর ছিল ১৩.৭৬৬, যা সর্বনিম্ন। তার সতীর্থরা তো বটেই, শুরুতেই এগিয়ে যান রাশিয়ানরা। ভল্টের ল্যান্ডিংয়ের পরই দেখা যায় তিনি চোটও পেয়েছেন।

jagonews24

সেখানে ছিলেন দলের ট্রেনার। এরপরই দেখা যায় টিমের চিকিৎসককে নিয়ে বাইলস ফ্লোর থেকে বেরিয়ে যান। ডান পায়ে ব্যান্ডেজ বাঁধা অবস্থায় ফ্লোরে ফেরেন কয়েক মিনিট পর। বার গ্রিপ খুলে ফেলে সতীর্থ গ্রেস ম্যাকালাম, সুনিসা লি ও জর্ডন চিলসকে একে একে জড়িয়ে ধরে জ্যাকেট ও সোয়েটপ্যান্টস পরে তিনি বেরিয়ে যান। তবে দলগত বিভাগের রৌপ্য বাইলসও পেয়েছেন।

বাইলস ছিটকে যাওয়ায় সুযোগটা লুফে নিয়েছে রাশিয়ান অলিম্পিক কমিটি। তাদের দলগত পয়েন্ট ছিল ১৬৯.৫২৮। অন্যদিকে যুক্তরাষ্ট্রের ১৬৬.০৯৬। ব্রোঞ্জ পাওয়া গ্রেট ব্রিটেনের স্কোর ছিল ১৬৪.০৯৬।

এবারের অলিম্পিকে ছয়টি সোনা জিতে মহিলা অলিম্পিয়ানদের মধ্যে সর্বাধিক সোনা জয়ের রেকর্ড গড়ার হাতছানি ছিল বাইলসের সামনে। কিন্তু যে ভল্টের জন্য তার বিশ্বজুড়ে খ্যাতি, সেখান থেকেই ছিটকে গেলেন।

টোকিও অলিম্পিকে আগামী ইভেন্টগুলিতে তার নামার সম্ভাবনাও কম। যদিও সরকারিভাবে জানানো হয়েছে, বাইলস চিকিৎসকদের তত্ত্বাবধানে থাকবেন। তার উপরই নির্ভর করবে তার এবারের অলিম্পিক-ভাগ্য।

এমএমআর/এমকেএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]