চুরির অভিযোগ করতে গিয়ে রাস্তায় মিলল চোর, ফিরে পেলেন রিকশা

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি রাজশাহী
প্রকাশিত: ০৩:৪০ পিএম, ২৮ জুলাই ২০২১

রাজশাহীর বিনোদপুর বাজারে ময়দা মিলে আটা নিতে ঢুকেছিলেন রিকশাচালাক নজরুল ইসলাম। ফিরে এসে দেখেন তার রিকশাটি নেই। কোনো এক ব্যক্তি রিকশাটি চুরি করে নিয়ে গেছেন।

পরে স্থানীয়দের পরামর্শে একটি রিকশাযোগে মেয়েকে সঙ্গে নিয়ে থানায় যাচ্ছিলেন অভিযোগ দায়ের করতে। তবে কাকতালীয়ভাবে রাস্তায়ই দেখা মেলে রিকশার। চোর সেটি চালিয়ে নিয়ে যাচ্ছিল। কিন্তু লকডাউনে পুলিশি বাধায় আটকা পড়েন তিনি। সঙ্গে সঙ্গে বিষয়টি দায়িত্বরত পুলিশকে জানান নজরুল ইসলাম। এতে গ্রেফতার হয় চোর এবং রিকশার আসল মালিক ফিরে পান রিকশাটি।

মঙ্গলবার (২৭ জুলাই) বেলা সাড়ে ১২টার দিকে রুয়েট গেটের সামনে অক্ট্রয় মোড় এলাকা থেকে রিকশা চুরির অভিযোগে আলমগীর (২৭) নামের এক ব্যক্তিকে আটক করা হয়।

police1

আটক আলমগীর মতিহার থানাধীন মির্জাপুর পূর্বপাড়া এলাকার নায়েব আলীর ছেলে। ঘটনাস্থলে দায়িত্বরত মতিহার থানার উপপরিদর্শক (এসআই) শাহাবুল বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

তিনি বলেন, ‘রুয়েট গেটের সামনে অক্ট্রয় মোড়ে সরকারঘোষিত কঠোর লকডাউন বাস্তবায়ন ও জনসচেতনায় মতিহার থানা পুলিশের একটি টিম নিয়ে কাজ করছিলাম। এসময় আলমগীর নামের এক ব্যক্তি রিকশা নিয়ে আমাদের সামনে দিয়ে যাচ্ছিলেন। তাকে গতিরোধ করে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। এসময় তার হাতে থাকা ব্যাগে একটি অ্যান্ড্রয়েড ফোন ছিল। মোবাইলের কাগজ দেখতে চাওয়া হয়। পরে তিনি তার বাসা থেকে কাগজ নিয়ে আনতে যান। কিন্তু তিনি ফেরার আগে রিকশাটির আসল মালিক রিকশার কাগজপত্রসহ এসে দাবি করেন রিকশাটি তার এবং আটা নিতে গিয়ে এটি চুরি হয়ে গেছে।’

police1

তিনি আরও বলেন, মোবাইলের কাগজ নিয়ে আলমগীর বাড়ি থেকে ফিরে আসলে তাকে জিজ্ঞেসাবাদ করা হয়। তবে সদুত্তর না মেলায় তাকে আটক করা হয়।

এ বিষয়ে মতিহার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. সিদ্দিকুর রহমান বলেন, রিকশা চুরির ঘটনায় দুপুরের দিকে একজনকে আটক করা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে একটি চুরির মামলা দায়ের হয়েছে।

ফয়সাল আহমেদ/এসআর/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]