এক মাস সংসার করার পর ‘অপহৃত’ কিশোরীকে উদ্ধার করলো পিবিআই

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি ময়মনসিংহ
প্রকাশিত: ০৯:৫০ এএম, ১৫ সেপ্টেম্বর ২০২১

অপহরণের এক মাস সংসার করার পর ১৫ বছরের এক কিশোরীকে উদ্ধার করেছে ময়মনসিংহ পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)।

মঙ্গলবার (১৪ সেপ্টেম্বর) সকাল সাড়ে ৭টার দিকে জেলার সদর উপজেলার চর নিলক্ষীয়া ইউনিয়নের দীঘলপাড়া এলাকা থেকে তাকে উদ্ধার করা হয়।

পরে বিকেলে ময়মনসিংহ নারী ও শিশু নির্যাতন আদালতের বিচারক মো. রফিকুল ইসলামের কাছে ওই কিশোরী জানায়, সে স্বেচ্ছায় মোজাম্মেল হক নামে এক যুবকের হাত ধরে পালিয়ে গিয়েছিল। পরে তাদের বিয়ে হয়। তারা এক মাস সংসারও করেছে।

পুলিশ পরিদর্শক ও মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা মো. দেলোয়ার হোসাইন জাগো নিউজকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

মামলার বরাত দিয়ে তিনি বলেন, মোজাম্মেল হক ওই কিশোরীকে প্রায়ই উত্ত্যক্ত করাসহ প্রেমের প্রস্তাব দিতেন। কিশোরী বিষয়টি তার মাকে জানালে তার মা মোজাম্মেলের মা জোসনা আরাকে জানান এবং ছেলেকে শাসন করতে বলেন। জোসনা আরা তার ছেলে মোজাম্মেলকে শাসন না করে উল্টো কিশোরীর মাকে গালিগালাজ করে তাদের বাড়ি থেকে তাড়িয়ে দেন। মায়ের কাছে বিচার দেওয়ায় ক্ষিপ্ত হয়ে মোজাম্মেল হক কিশোরীকে অপহরণের সুযোগ খুঁজতে থাকেন।

গত ২২ আগস্ট ভোররাতে ওই কিশোরী প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিতে ঘর থেকে বের হয়। এ সময় আগে থেকে ওত পেতে থাকা মোজাম্মেল হক তার সহযোগীদের নিয়ে তাকে অপহরণ করে সিএনজিতে করে অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে যান।

এ ঘটনায় মামলা দায়েরের পর অভিযান চালিয়ে ভিক্টিমকে উদ্ধার করে আদালতে সোপর্দ করে পিবিআই। তবে কিশোরী আদালতকে জানিয়েছে, সে স্বেচ্ছায় মোজাম্মেল হকের সঙ্গে পালিয়ে গিয়ে বিয়ে করেছেন।

মোজাম্মেল হক সদর উপজেলার চর নিলক্ষিয়া ইউনিয়নের মৃত রাজ্জাক আলীর ছেলে।

মঞ্জুরুল ইসলাম/এসআর/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]