সাড়ে ৩ কোটি টাকার গাড়ি উদ্ধার, মালিককে খুঁজছে পুলিশ

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক রংপুর
প্রকাশিত: ০৮:০৪ পিএম, ১৫ অক্টোবর ২০২১

রংপুরে সাড়ে তিন কোটি টাকা দামের ‘জাগুয়ার এক্স’ মডেলের একটি পরিত্যক্ত গাড়ি উদ্ধার করেছে পুলিশ। তবে ওই গাড়ির প্রকৃত মালিককে খুঁজে পাওয়া যায়নি। চট্টো মেট্রো ভ-১১-০০৩৯ নম্বরের ‘জাগুয়ার এক্স’ মডেলের স্পোর্টস কারটির বর্তমানে পুলিশ হেফাজতে রয়েছে। এ ঘটনায় এক চিকিৎসকসহ কয়েকজনকে আসামি করে মামলা হয়েছে।

শুক্রবার (১৫ অক্টোবর) সন্ধ্যায় মেট্রোপলিটন পুলিশের সহকারী কমিশনার (ডিবি অ্যান্ড মিডিয়া) সাজ্জাদ হোসেন গাড়ি উদ্ধারের বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, বুধবার রাতে নগরীর ধাপ এলাকার পপুলার ডায়াগনস্টিকের মালিক ডা. মোস্তাফিজুর রহমানের বাড়ি থেকে পরিত্যক্ত অবস্থায় গাড়িটি উদ্ধার করা হয়। তবে মোস্তাফিজুর রহমান ওই গাড়ির মালিকানা অস্বীকার করেছেন।

সাজ্জাদ হোসেন আরও বলেন, গাড়িটির প্রকৃত মালিকানার বিষয়ে কেউ স্বীকার করছেন না। চোরাই পণ্য কেনাবেচা সংক্রান্ত একটি মামলা হয়েছে। এতে ডা. লুৎফে আলী রনিসহ বেশ কয়েকজনকে অজ্ঞাত আসামি করা হয়েছে। বিআরটিএর মাধ্যমে তথ্য নেওয়াসহ প্রকৃত মালিককে খুঁজতে মাঠে কাজ করছে পুলিশ।

পুলিশ জানায়, পপুলার ডায়াগনস্টিকের মালিক ডা. মোস্তাফিজুর রহমানের বাড়িটি লুৎফে আলী রনি দখলে রেখেছেন এমন অভিযোগ পেয়ে সেখানে যান তারা। এ সময় বাড়ির গ্যারেজে পরিত্যক্ত অবস্থায় ওই গাড়িটি দেখতে পেয়ে মালিকের নাম জানতে চায়। তবে রনি গাড়িটির মালিকানা অস্বীকার করেন।

স্থানীয়রা ওই ঘটনাটি রহস্যজনক দাবি করে বলেন, পপুলার ডায়াগনস্টিকের মালিকের ভবনের পাশের একটি টিনের ঘরে গাড়িটি পরিত্যক্ত অবস্থায় দীর্ঘদিন ধরে পড়েছিল। সেখানে সাধারণের প্রবেশাধিকার ছিল না। নির্দিষ্ট কিছু লোক সেখানে যাতায়াত করতেন। একারণে প্রকৃত মালিক সম্পর্কে এলাকার কেউ জানেন না।

এ বিষয়ে ডা. লুৎফে আলী রনি বলেন, পপুলারের মালিকের কাছে আমি জমির টাকা পাই। উনি (মোস্তাফিজুর রহমান) আমার জমি দখল করে রেখেছেন। এখন ওনার সীমানা প্রাচীরের ভেতরে আমার জমি রয়েছে। পপুলার ডায়াগনস্টিকের মালিকের সঙ্গে চুক্তি হয়েছে। কিন্তু টাকা দিতে তের দিন ধরে বসিয়ে রেখেছে। তবে ওই গাড়ি সম্পর্কে আমার কিছু জানা নেই।

জিতু কবীর/আরএইচ/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]