টাকা চুরির ঘটনা দেখে ফেলায় শিশুকে হত্যার অভিযোগ

উপজেলা প্রতিনিধি উপজেলা প্রতিনিধি সাভার (ঢাকা)
প্রকাশিত: ০১:২৩ পিএম, ১৮ অক্টোবর ২০২১
ফাইল ছবি

সাভারে টাকা চুরির ঘটনা দেখে ফেলায় মো. ফেরদৌস (১১) নামে এক শিশুকে শ্বাসরোধ করে হত্যার অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় বাসের এক স্টাফকে আটক করা হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

রোববার (১৭ অক্টোবর) দিনগত রাত ১২টার দিকে আশুলিয়ার বাইপাইল এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। ভোর সাড়ে ৪টার দিকে ওই শিশুর মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

নিহত মো. ফেরদৌস আশুলিয়া ক্ল্যাসিক পরিবহনে কাজ করতো। সে শেরপুর জেলার সদর থানার মুন্সিপাড়া গ্রামের বাসচালক রইচ উদ্দিনের ছেলে। আশুলিয়ার পল্লীবিদ্যুৎ বালুর মাঠ এলাকায় পরিবারের সঙ্গে ভাড়া বাসায় থাকতো ফেরদৌস।

এ ঘটনায় আটক মো. হৃদয় আশুলিয়া ক্ল্যাসিক পরিবহনের কন্ডাক্টর। আর পলাতক মো. পারভেজ একই পরিবহনের হেলপার।

নিহত শিশুর বড় বোন রুবিনা বেগম বলেন, ‘আমার বাবা আশুলিয়া ক্ল্যাসিক পরিবহনের চালক। ছোট ভাই ফেরদৌস একটু চঞ্চল প্রকৃতির হওয়ায় তিনদিন আগে ওকে আশুলিয়া ক্ল্যাসিক পরিবহনে কাজে পাঠানো হয়। ভোরে আমার ভাইয়ের লাশ বাইপাইল রাস্তা থেকে উদ্ধার করে পুলিশ।’

পুলিশ জানায়, রাত ১২টার দিকে রাজধানীর আব্দুল্লাহপুর থেকে ওই বাসটি বাইপাইল পৌঁছায়। পরে গাড়ির মধ্যে ঘুমিয়ে পড়েন কন্ডাক্টর হৃদয় ও হেলপার পারভেজ। এসময় শিশু ফেরদৌসও গাড়িতে ছিল। ঘুম ভাঙলে তার পকেট থেকে ৫০০ টাকা খোয়া গেছে বলে অভিযোগ করেন হৃদয়। এসময় শিশু ফেরদৌস তাকে জানায় যে, পারভেজ টাকা চুরি করতে দেখেছে সে। বিষয়টি শুনে পারভেজ ও হৃদয়ের মধ্যে বাগবিতণ্ডা হয়। এক পর্যায়ে ক্ষিপ্ত হয়ে পারভেজ শিশু ফেরদৌসকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে। পরে পারভেজ ও হৃদয় মিলে ফেরদৌসের মরদেহ সড়কে ফেলে রেখে নিজেরাই পুলিশকে দুর্ঘটনার খবর দেয়।

আশুলিয়া থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) সামিউল ইসলাম জানান, রাতেই এ ঘটনায় আশুলিয়া ক্ল্যাসিক পরিবহনের কন্ডাক্টর হৃদয়কে আটক করা হয়েছে। তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। প্রাথমিকভাবে ৫০০ টাকা চুরির ঘটনা দেখে ফেলায় ওই শিশুকে হত্যা করা হয়েছে বলে জানা গেছে। তদন্ত করে প্রকৃত ঘটনা জানা যাবে। এ ঘটনায় একটি হত্যা মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে। মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। একই সাথে অভিযুক্ত পারভেজকে আটকের চেষ্টা চলছে বলেও জানান তিনি।

এফআরএম/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]