ফুলেফেঁপে উঠেছে তিস্তা, গঙ্গাচড়ায় ১০ হাজার পরিবার পানিবন্দি

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক রংপুর
প্রকাশিত: ০৯:৪৭ পিএম, ২০ অক্টোবর ২০২১

অতিবৃষ্টি ও উজানের ঢলে ফুলেফেঁপে উঠেছে তিস্তা। বুধবার (২০ অক্টোবর) সন্ধ্যা ৬টায় লালমনিরহাটের হাতীবান্ধা তিস্তা ব্যারাজ পয়েন্টে বিপৎসীমার ৭০ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে পানি প্রবাহিত হয়েছে বলে জানিয়েছেন ডালিয়া পানি উন্নয়ন বোর্ডের (পাউবো) উপ-বিভাগীয় নির্বাহী প্রকৌশলী রাশেদীন ইসলাম। এতে রংপুরের গঙ্গাচড়ায় তিস্তা তীরবর্তী নিম্নাঞ্চলের অন্তত ১০ হাজার পরিবার পানিবন্দি হয়ে পড়েছে।

তিস্তা তীরবর্তী নিম্নাঞ্চলের পানিবন্দি পরিবারগুলো শিশু, বৃদ্ধ ও গবাদিপশু নিয়ে বিপাকে পড়েছেন। পানিবন্দ লোকজনের মধ্যে দেখা দিয়েছে চরম দুর্ভোগ। বন্যায় চরাঞ্চলের সবজিসহ ফসলের ব্যাপক ক্ষতির আশঙ্কা করছেন চাষিরা। অনেকের ফসল এরইমধ্যে পানিতে তলিয়ে গেছে।

jagonews24

তিস্তায় পানি বৃদ্ধিতে তিস্তা ব্যারাজের ভাটি এলাকা গঙ্গাচড়া উপজেলার নোহালী ইউনিয়নের নোহালী, চর নোহালী, বাগডোহরা, মিনার বাজার, চর বাগডোহরা ও নোহালী সাপমারী, আলমবিদিতর ইউনিয়নের হাজীপাড়া ও ব্যাংকপাড়া, কোলকোন্দ ইউনিয়নের চিলাখাল, উত্তর চিলাখাল, মটুকপুর, বিনবিনা মাঝের চর, সাউদপাড়া ও বাবুরটারী, বাঁধেরপাড়. লক্ষিটারী ইউনিয়নের শংকরদহ, পূর্ব ইচলী, জয়রামওঝা, পশ্চিম ইচলী, মহিপুর ও কলাগাছি, গজঘন্টা ইউনিয়নের ছালাপাক, গাউছিয়া, জয়দেব, রমাকান্ত, একনাথ ও কালির চর এবং মর্নেয়া ইউনিয়নের আলাল চর, তালপট্টি চর, হাজির পাড়া, নরসিংহ এবং মর্নেয়া চর এলাকায় প্রায় ১০ হাজার পরিবার পানিবন্দি হয়ে পড়েছে বলে জানিয়েছেন ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যানরা।

কোলেকান্দ ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান সোহরাব হোসেন রাজু জানান, শুধু তার ইউনিয়নেই ৩ হাজার পরিবার পানিবন্দি হয়ে পড়েছে।

jagonews24

লক্ষিটারী ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল্লাহ আল হাদী বলেন, তিস্তার পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় লোকজনদের নিরাপদ স্থানে সরে যাওয়ার জন্য মাইকিং করা হয়েছে। এবারের ভয়াবহ বন্যয় আমার এলাকার তিস্তার চরাঞ্চলে প্রায় ৫ হাজার পরিবার পানিবন্দি হয়ে পড়েছে।

তিস্তায় পানি বৃদ্ধি পেয়ে সৃষ্ট বন্যার বিষয়টি নিশ্চিত করে রংপুর পানি উন্নয়ন বোর্ডের উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী মো. জাকারিয়া বন্যা সতর্কীকরণ কেন্দ্রের বরাত দিয়ে সাংবাদিকদের জানান, বুধবার বিপৎসীমার ৭০ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে পানি প্রবাহিত হচ্ছিল।

ডালিয়া পানি উন্নয়ন বোর্ডের (পাউবো) উপ-বিভাগীয় নির্বাহী প্রকৌশলী রাশেদীন ইসলাম বলেন, বুধবার (২০ অক্টোবর) সন্ধ্যা ৬টায় লালমনিরহাটের হাতীবান্ধা তিস্তা ব্যারাজ পয়েন্টে বিপৎসীমার ৭০ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে পানি প্রবাহিত হয়েছে।

জিতু কবীর/ইউএইচ/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]