ময়মনসিংহে যুদ্ধাপরাধ মামলার ৩ আসামি কারাগারে

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি ময়মনসিংহ
প্রকাশিত: ০৮:০৯ পিএম, ২১ অক্টোবর ২০২১

ময়মনসিংহে যুদ্ধাপরাধ মামলায় গ্রেফতার তিন আসামিকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। বৃহস্পতিবার (২১ অক্টোবর) আদালতে তোলা হলে বিচারক তাদের কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

কারাগারে পাঠানোর বিষয়টি জাগো নিউজকে নিশ্চিত করেছেন চীফ জুডিশিয়াল আদালতের কোর্ট পরিদর্শক প্রসুন কান্তি দাস।

ওই তিন আসামি হলেন- জেলার ঈশ্বরগঞ্জের আঠারবাড়ি ইউনিয়নের ইটাউলিয়া গ্রামের সমশের আলীর ছেলে তারা মিয়া (৭০), কালিয়ান গ্রামের মেফর আলীর ছেলে মো. রুস্তম আলী (৮১), সোহাগী বাজার এলাকার মৃত হোসাইন আহম্মেদের ছেলে সৈয়দ মোস্তাফিজুর রহমান (৭২)।

বৃহস্পতিবার বিকেল ৫টায় সৈয়দ মোস্তাফিজুর রহমানকে চীফ জুডিশিয়াল আদালতের বিচারক মো. আব্দুল হাইয়ের আদালতে তোলা হলে বিচারক তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

একইদিন সন্ধ্যার দিকে তারা মিয়া ও মো. রুস্তম আলীকে চীফ জুডিশিয়াল আদালতের বিচারক মাহবুবা আক্তারের আদালতে তোলা হলে বিচারক তাদের কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

এ বিষয়ে ময়মনসিংহ কোতোয়ালি মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. শাহ কামাল আকন্দ বলেন, যুদ্ধাপরাধ ট্রাইব্যুনালের মামলায় গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি হলে অভিযান চালিয়ে মোস্তাফিজুর রহমানকে নগরীর এবিগুহ রোড এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয়।

ঈশ্বরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আবদুল কাদের মিয়া বলেন, যুদ্ধাপরাধ ট্রাইব্যুনালের মামলায় গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি হলে অভিযান চালিয়ে তারা মিয়া ও মো. রুস্তম আলীকে তাদের নিজ বাড়ি থেকে গ্রেফতার করা হয়।

পুলিশ জানায়, গ্রেফতার তিনজনই মুক্তিযুদ্ধের সময় গণহত্যা, অগ্নিসংযোগের মতো অপরাধে যুক্ত ছিলেন। তারা ছাড়াও মোট ১২ জনের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করা হয়েছে। এদের মধ্যে তারা মিয়া জালিয়াতির মাধ্যমে যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে মুক্তিযোদ্ধা কল্যাণ ট্রাস্টের ভাতা ভোগ করছিলেন।

মঞ্জুরুল ইসলাম/ইউএইচ/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]