জাগো নিউজে সংবাদ প্রকাশের পর রিপনের দায়িত্ব নিলেন ইউএনও

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি ময়মনসিংহ
প্রকাশিত: ০১:৫১ এএম, ২২ অক্টোবর ২০২১
রিপন মিয়ার সঙ্গে কথা বলছেন ইউএনও হাফিজা জেসমিন

দুই হাতে ভর করে ভিক্ষা করা রিপন মিয়ার (৩৭) দায়িত্ব নিয়েছেন ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) হাফিজা জেসমিন। তিনি তাকে একটি কাজের ব্যবস্থা করে দেবেন। সেই সঙ্গে দেবেন একটি ঘরও।

বৃহস্পতিবার (২১ অক্টোবর) বিকেলে রিপন মিয়া ইউএনও’র সঙ্গে দেখা করতে গেলে তাকে এই কথা জানান তিনি।

এর আগে ১১ অক্টোবর ‘দুই হাতের ভরে রিপন মিয়ার ৩০ বছরের সংসার’ এ শিরোনামে জাগো নিউজে একটি সংবাদ প্রকাশ হয়। যা নজরে আসে ইউএনও’র। এতে করে তিনি রিপন মিয়াকে সহায়তা করার সিদ্ধান্ত নেন।

ইউএনও হাফিজা জেসমিন জাগো নিউজকে বলেন, রিপন মিয়া প্রতিবন্ধী। তাকে যদি আর্থিক সহায়তা দেওয়া হয়, তাহলে তা শেষ হলে তিনি আবার ভিক্ষা করবেন। এ জন্য তাকে ট্রেনিং করিয়ে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে একটা কাজের ব্যবস্থা করে দেওয়া হবে। এছাড়া একটি ঘরও দেওয়া হবে থাকার জন্য।

jagonews24

এদিকে ইউএনও’র সঙ্গে দেখা করে জাগো নিউজকে ধন্যবাদ জানান রিপন মিয়া। তিনি বলেন, সংবাদ প্রকাশের পর ইউএনও স্যার আমার সঙ্গে যোগাযোগ করে দেখা করতে বলেন। আজ দেখা করতে গেলে, স্যার ট্রেনিং ও পুঁজি দিয়ে একটি কাজের ব্যবস্থা করে দেবেন। এছাড়া একটি ঘর দেবেন।

শারীরিক প্রতিবন্ধী রিপন ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলার মাইজবাগ ইউনিয়নের হারুয়া গ্রামের আব্দুর রহমানের ছেলে। পৈতৃক পাঁচ শতাংশ জমিতে তাদের ছয় ভাইয়ের বসবাস।

রিপনের বয়স যখন সাত, তখন তিনি টাইফয়েড জ্বরে আক্রান্ত হন। এরপর থেকে অচল হয়ে যায় তার দুই পা। সংসারে অভাব থাকায় চিকিৎসা করাতে পারেননি বাবা। ১২-১৩ বছর বয়সে হারান মাকে। এরপর থেকেই শুরু রিপনের জীবনযুদ্ধ।

দুই হাতে ভর করে বিভিন্ন বাজারে হাত পেতে, ভিক্ষা করে সংসার চলে তার। ১৭ বছর আগে বিয়ে করেন। তাদের সংসারে এক মেয়ে ও দুই ছেলে রয়েছে। পাঁচ সদস্যের পরিবার নিয়ে ঝুপড়ি ঘরেই তাদের বসবাস।

মঞ্জুরুল ইসলাম/জেডএইচ/

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]