খুলনায় মুরগির সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে অন্যান্য পণ্যের দাম

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক খুলনা
প্রকাশিত: ০১:১০ পিএম, ২৩ অক্টোবর ২০২১

খুলনার বাজারে প্রায় সব ধরনের নিত্যপণ্যের দামই বেড়েছে। তবে সবচেয়ে বেশি দাম বেড়েছে ব্রয়লার মুরগি ও কাঁচামরিচের। গত এক মাসের ব্যবধানে কেজিতে মুরগির দাম বেড়েছে ৫০ থেকে ৮০ টাকা। কৃত্রিম সংকট তৈরি করে মুরগির দাম বাড়ানো হয়েছে বলে দাবি করছেন খুচরা বিক্রেতারা।

নগরীর কয়েকটি বাজার ঘুরে দেখা গেছে, প্রতিকেজি কক মুরগি বিক্রি হচ্ছে ৩২০ টাকায়। প্রতিকেজি সোনালি মুরগি ৩০০ টাকা, ব্রয়লার ১৭০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। লেয়ার লাল ও সাদা জাতের মুরগি বিক্রি হচ্ছে ২২০ ও ২৪০ টাকা দরে। দেশি মুরগি বিক্রি হচ্ছে আগের দর ৩৫০ টাকায়।

নগরীর রূপসা বাজারের মুরগি বিক্রেতা বাদল ও জীবন হাওলাদার বলেন, গত এক মাসের বেশি সময় ধরে মুরগির দাম বাড়ছে। বাজারে মুরগির সংকট থাকায় দাম বেড়েছে।

jagonews24

রূপসা উপজেলার খামারি শামসুজ্জামান শাহিন বলেন, মুরগির খাবারের দাম বেড়েছে। দু’মাস আগে যে খাবার ৩১ টাকায় কেনা যেতো সেটি এখন ৪৩ টাকায় কিনতে হচ্ছে। এছাড়া মুরগির বাচ্চার দামও বেড়েছে। বাচ্চা পালনে খরচ বাড়ায় মুরগির দাম কিছুটা বাড়তি।

খুলনা পোল্ট্রি ফিস ফিড শিল্প মালিক সমিতির মহাসচিব এস এম সোহরাব হোসেন দাম বৃদ্ধির কথা স্বীকার করে বলেন, পোল্ট্রি মুরগির প্রধান খাবার সয়াবিন ফলের খৈল বাইরে রপ্তানিরর কারণে দাম বৃদ্ধি পেয়েছে। দেশীয় এ শিল্প রক্ষার জন্য আমরা প্রতিবাদও জানিয়েছি। খাবারের মূল্য প্রতিকেজিতে ১০ থেকে ১৩ টাকা করে বেড়েছে। এতে খামারিদের উৎপাদন খরচও বেড়ে গেছে। তাছাড়া পূর্বে খামারিদের সরকারকে কোনো কর দিতে হতো না। গত অর্থবছর থেকে খামারিদের ওপর কর চাপানো হয়েছে বলে উৎপাদন খরচ বেড়ে গেছে। খাবারের দাম যে পরিমাণ বেড়েছে, তাতে ফার্মের মালিকরা সঠিক বাজারদর পাচ্ছেন না বলেও জানান তিনি।

jagonews24

সংকট নিরাসনে ফিডের দাম নির্ধরণসহ করোনাকালীন বন্ধ হয়ে যাওয়া খামারিদের সরকারি সহায়তা দেওয়ার আহ্বান জানান তিনি।

এদিকে মুরগির দামের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে অন্যান্য নিত্যপণ্যের দাম। মহানগরীর গল্লামারী বাজার, টুটপাড়া জোড়াকল বাজার, ময়লাপোতা সন্ধ্যা বাজারে গিয়ে দেখা যায়, কুঁমড়া বিক্রি হচ্ছে ৪০ টাকায় আর পেঁপে বিক্রি হচ্ছে ৩০ টাকা কেজি দরে। এছাড়া গাজর ১৪০ থেকে ১৬০ টাকা, লাল শাক ৪০ টাকা, পালং শাক ৩০ টাকা, বরবটি ৭০ টাকা, ঝিঙে ৪৫ টাকা, শিম ৮০ টাকা, টমেটো ৮০ টাকা, কাঁচামরিচ ১৪০ টাকা, পেঁয়াজ ৬০ টাকা এবং বেগুন ৫০ থেকে ৬০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে।

jagonews24

টুটপাড়া জোড়াকল বাজারের নিত্যপণ্যের ব্যবসায়ী বাদশা ও আব্বাস বলেন, বাজারে কোনো পণ্যের সরবরাহ কমতি নেই। তারপরও সবকিছুর দাম বেড়ে চলেছে।

তারা আরও বলেন, দাম বাড়লেও ক্রেতারা কিছু বলছেন না। যার কেনার দরকার তিনি কিনে নিয়ে যাচ্ছেন। তবে খুলনার বাজারগুলোতে মাছের দাম আগের মতই রয়েছে।

আলমগীর হান্নান/ইউএইচ/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]