বিরিয়ানির প্যাকেটে হেরোইন রেখে মামা-মামিকে ফাঁসাতে গিয়ে ধরা যুবক

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি রাজশাহী
প্রকাশিত: ০৮:৫৯ এএম, ২৫ নভেম্বর ২০২১

বিরিয়ানির প্যাকেটে হেরোইন রেখে মামা-মামিকে ফাঁসাতে গিয়ে পুলিশের হাতে ধরা পড়েছেন মো. বাঁধন হোসেন সৌরভ (১৯) নামের এক যুবক।

বুধবার (২৪ নভেম্বর) রাত সাড়ে ১০টার দিকে নগরীর কাশিয়াডাঙ্গা থানার হড়গ্রাম কোর্ট স্টেশন এলাকায় থেকে তাকে আটক করে পুলিশ।

আটক বাঁধন লক্ষ্মীপুর ভাটাপাড়ার আরিফুল ইসলাম ইমনের ছেলে। হয়রানির শিকার মামা নগরীর হড়গ্রাম এলাকার বাসিন্দা মো. বাবু (৩১) ও তার স্ত্রী লাইজু বেগম (২১)।

কাশিয়াডাঙ্গা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এবিএম মাসুদ পারভেজ জানান, প্রথম স্ত্রী থাকার পরও আড়াই মাস আগে বাবু লাইজু বেগমকে বিয়ে করেন। এতে ক্ষিপ্ত হন বাঁধন। একাধিকবার মামাকে দ্বিতীয় স্ত্রী লাইজুকে ছেড়ে দেওয়ার জন্য চাপ দেন। ভাগনের কথা না শোনায় ক্ষোভে হড়গ্রাম কোর্ট স্টেশন এলাকায় দাঁড়িয়ে থাকা মামা-মামিকে ফাঁসাতে তাদের হাতে একটি বিরিয়ানির প্যাকেট ধরিয়ে দেন। ওই বিরিয়ানির প্যাকেটে ১০ গ্রাম হেরোইন রেখে বাঁধন পুলিশকে খবর দেন।

ওসি বলেন, রাস্তায় দাঁড়িয়ে থাকা মামা-মামির কাছ থেকে বিরিয়ানির প্যাকেটটি উদ্ধার করে সেখানে হেরোইন পান। ভাগিনা বাঁধন কিছুক্ষণ আগে বিরিয়ানির প্যাকেটটি রাখার জন্য দিয়ে কিছুক্ষণ পর সে নিয়ে যাবে বলেছে। কিন্তু সে না আসায় তারা রাস্তায় ল্যাম্পপোস্টের নিচে দাঁড়িয়ে অপেক্ষা করছেন বলে জিজ্ঞাসাবাদে জানান।

পরে আরএমপির সিসিটিভি ফুটেজ ও সাইবার ক্রাইম ইউনিটের সহায়তায় তথ্য প্রদানকারী কল রেকর্ড যাচাই করে ঘটনায় হয়রানির স্বীকার বাবু ও তার স্ত্রীর কথার সত্যতা মেলে। পরে তাদের ছেড়ে দিয়ে মূল আসামি বাঁধনকে গ্রেফতার করা হয়।

ওসি মাসুদ পারভেজ বলেন, বাঁধনের বিরুদ্ধে পূর্বে মাদকদ্রব্য, নারী-শিশু নির্যাতন ও সামাজিক শৃঙ্খলা ভঙ্গের দায়ে তিনটি মামলা রয়েছে। পরে মাদকদ্রব্য রাখা ও পরিকল্পিতভাবে মিথ্যা মামলায় অন্যকে ফাঁসানোর চেষ্টার দায়ে আরও একটি মামলা করা হয়।

ফয়সাল আহমেদ/আরএইচ/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]