স্বামীর সামনেই ট্রেনে কাটা পড়ে প্রাণ গেলো স্ত্রীর

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি রাজশাহী
প্রকাশিত: ০৩:২৪ পিএম, ২৯ নভেম্বর ২০২১
ফাইল ছবি

রাজশাহীতে স্বামীর সামনেই ট্রেনে কাটা পড়ে স্ত্রীর মৃত্যু হয়েছে। সোমবার (২৯ নভেম্বর) সকাল ৮টার দিকে রাজশাহী নগরীর ডিঙ্গাডোবা এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী ডিঙ্গাডোবা এলাকার আব্দুস সালাম জানান, সকাল ৮টার দিকে ওই নারী ও তার স্বামী ডিঙ্গাডোবা এলাকায় নামেন। তার স্বামী মোটরসাইকেল পার্ক করছিলেন। ওই নারী রেললাইনের পাশে অবস্থিত বস্তির দিকে যাচ্ছিলেন। এ সময় ট্রেন চলে আসে। তাকে কয়েকজন ডাক দিয়ে সর্তক করলেও তিনি শুনতে পাননি। এতে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়।

ট্রেনে কাটা পড়ে নিহত ওই নারী গ্রামীণ ব্যাংকের কর্মী, নাম ডলি পারভিন (৩৭)। তাদের গ্রামের বাড়ি নাটোরে। তিনি গ্রামীণ ব্যাংকের রাজশাহী পবা উপজেলার হড়গ্রাম শাখায় কর্মরত ছিলেন।

তার স্বামী আব্দুস সবুরও গ্রামীণ ব্যাংকে কর্মরত। তারা মহানগরীর তেরোখাদিয়া উত্তরপাড়ার একটি ভাড়া বাসায় থাকতেন।

এ বিষয়ে আব্দুস সবুর বলেন, প্রতিদিনের মতো আমরা টাকা কালেকশনের জন্য বাড়ি থেকে বের হয়েছিলাম। আজ আমি ডিঙ্গাডোবা মোড়ে গাড়ি পার্ক করার জন্য থামলে সে বাইক থেকে নেমে বস্তির দিকে যায়। এ সময় রাজশাহী থেকে চাঁপাইনবাবগঞ্জগামী একটি ট্রেন ডলি পারভিনকে ধাক্কা দেয়। এতে রেললাইনের ওপর পড়ে গিয়ে ট্রেনে কাটা পড়ে সে মারা যায়।

পরে খবর পেয়ে রাজপাড়া থানার পুলিশ গিয়ে মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠায়।

এ বিষয়ে রাজশাহী রেলওয়ে (জিআরপি) থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রকিব উর ইসলাম বলেন, ডিঙ্গাডোবায় একটি দুর্ঘটনা ঘটেছে। মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য রামেক মর্গে পাঠানো হয়েছে। তবে নিহতের স্বামী তাতে আপত্তি জানালে দাফনের জন্য মরদেহ হস্তান্তর করা হয়েছে।

এ ঘটনায় একটি মামলা দায়ের করা হবে বলেও জানান তিনি।

ফয়সাল আহমেদ/এমএইচআর/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]