এমবিবিএস ডাক্তার পরিচয়ে রোগী দেখতেন এইচএসসি পাস রফিকুল

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৪:৪৯ পিএম, ০৭ ডিসেম্বর ২০২১

বরিশালের গৌরনদী উপজেলায় এইচএসসি পাস করে নিজেকে এমবিবিএস চিকিৎসক পরিচয় দিয়ে রোগীদের সঙ্গে প্রতারণা করার দায়ে রফিকুল ইসলাম (৪৯) নামের এক ব্যক্তিকে এক বছরের কারাদণ্ড ও ৫০ হাজার টাকা জরিমানা, অনাদায়ে আরও তিন মাসের কারাদণ্ড দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। পাশাপাশি তাকে সহযোগিতা করায় আনোয়ারা মেডিকেল হল নামের একটি ফার্মেসির মালিক মো. শহিদুল্লাহকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা, অনাদায়ে ২০ দিনের কারাদণ্ড দেওয়া হয়।

মঙ্গলবার (৭ ডিসেম্বর) দুপুরে ভ্রাম্যমাণ আদালতের বিচারক নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও গৌরনদী উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. আরিফুল ইসলাম প্রিন্স এ আদেশ দেন।

দণ্ডপ্রাপ্ত রফিকুল ইসলাম শেরপুর জেলা সদরের চরমুচারিয়া গ্রামের আব্দুল ওয়াহেদের ছেলে। অর্থদণ্ডপ্রাপ্ত শহিদুল্লাহ গৌরনদী উপজেলার বাসিন্দা। তার টরকী বন্দর সংলগ্ন নীলখোলা এলাকায় আনোয়ারা মেডিকেল হল নামের ফার্মেসিতে রফিকুল ইসলামের চেম্বার ছিল। সেখানে এইচএসসি পাস রফিকুল ইসলাম নিজেকে এমবিবিএস পাস চিকিৎসক পরিচয় দিয়ে দীর্ঘদিন ধরে মানুষের সঙ্গে প্রতারণা করে আসছিলেন।

ভ্রাম্যমাণ আদালত সূত্র জানায়, রফিকুল ইসলাম দীর্ঘদিন ধরে ফার্মেসিতে চেম্বার দিয়ে রোগী দেখে আসছিলেন। তার অপচিকিৎসায় অনেক রোগীর ক্ষতি হয়েছে। তিনি প্রতারণা করে রোগীদের কাছ থেকে বিপুল পরিমাণ অর্থ হাতিয়ে নিয়েছেন। সন্দেহ হলে মঙ্গলবার দুপুরে রফিকুল ইসলামের কাছে এমবিবিএসের সনদ দেখতে চাওয়া হয়। এসময় তিনি পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেন। পরে তাকে আটক করে উপজেলা প্রশাসনকে খবর দেওয়া হয়। পরে
জিজ্ঞাসাবাদে নিজে এইচএসসি পাস বলে স্বীকার করেন রফিকুল। পরে ভ্রাম্যমাণ আদালত বসিয়ে তাকে এ দণ্ড দেওয়া হয়।

ভ্রাম্যমাণ আদালতের বিচারক নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আরিফুল ইসলাম প্রিন্স এতথ্য নিশ্চিত করেছেন।

সাইফ আমীন/এসআর/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]