অবহেলিতদের নিয়ে কাজ করতে ভোটের মাঠে ৩ ফুটের সালমা

উপজেলা প্রতিনিধি উপজেলা প্রতিনিধি সাভার (ঢাকা)
প্রকাশিত: ১১:৫১ এএম, ০৯ ডিসেম্বর ২০২১

শারীরিক প্রতিবন্ধকতা ছাপিয়ে জীবনের প্রতিটি ধাপ সফলভাবেই অতিক্রম করেছেন ৩ ফুট ২ ইঞ্চি উচ্চতার সালমা। লেখাপড়াও প্রায় শেষ পর্যায়ে। সাভার বিশ্ববিদ্যালয় কলেজে মাস্টার্সে পড়ছেন তিনি। এবার ইউপি সদস্য প্রার্থী হিসেবে নির্বাচনী মাঠে নামবেন তিনি।

আগামী ৫ জানুয়ারি পঞ্চম ধাপের নির্বাচনে সাভারে ইউপি সদস্য প্রার্থী হিসেবে লড়বেন তিনি। সাভারের বিরুলিয়া ইউনিয়নের ১, ২ ও ৩ নং ওয়ার্ডের সংরক্ষিত মহিলা আসনে প্রার্থী হিসেবে বুধবার (৮ ডিসেম্বর) সাভার অধরচন্দ্র স্কুলে মনোনয়ন ফরম জমা দেন তিনি।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, বিরুলিয়ার কালিয়াকৈর গ্রামের মোহাম্মদ আলীর মেয়ে সালমা আক্তার। জন্মের পরই বাবা-মা অনুভব করেছিলেন তার মেয়ে খর্বাকৃতির। এ নিয়ে তাদের দুঃখের সীমা ছিল না। সব সময় চিন্তা করতেন তিনি তাদের পরিবারের বোঝা হয়ে থাকবেন। কিন্তু সকল প্রতিবন্ধকতা ছাপিয়ে ২০২০ সালে বিএ পাস করে বর্তমানে সাভার বিশ্ববিদ্যালয়ে মাস্টার্সে পড়ছেন তিনি। প্রতিবন্ধীদের নিয়ে স্বেচ্ছাসেবক হিসেবে কাজও করছেন তিনি। এবার ইউপি সদস্য প্রার্থী হিসেবে নির্বাচনও করছেন।

সালমা বলেন, ছোটবেলা থেকেই বিভিন্ন প্রতিকূলতার মধ্যে বড় হয়েছি। স্কুলে যাওয়ার পথে মানুষ হাসাহাসি করতো। কলেজে যেতে বাসে উঠলেও ব্যঙ্গ করতো মানুষ। বলতো আমি লেখাপড়া করে কী করবো। আমি দেখাতে চাই খর্বাকৃতিরা বোঝা নয়। তারাও অনেক কিছু করতে পারেন।

তিনি বলেন, আমি ইউনিয়ন পরিষদে কাগজপত্র নিতে ভোগান্তিতে পড়েছি। এ ধরনের ভোগান্তি নিরসনে কাজ করবো। মানুষ অবহেলিত হলে তাদের কি যন্ত্রণা তা আমি বুঝি। তাই অবহেলিতদের নিয়ে কাজ করতে চাই। এলাকাবাসীর ব্যাপক সাড়া পাচ্ছি। এমন থাকলে আমি অবশ্যই জয়ী হবো।

এ ব্যাপারে স্থানীয় ভোটার উম্মে কুলসুম বলেন, এবার সংরক্ষিত আসনে যারা প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন তাদের মধ্যে খর্বাকৃতির হলেও সালমা বেশি শিক্ষিত। সে প্রতিবন্ধী হয়ে দেখিয়ে দিতে চায় প্রতিবন্ধীরা বোঝা নয়। তাই আমরা মনে করি তাকে সুযোগ দেওয়া দরকার। এজন্য আমরা তাকেই ভোট দেবো।

সাভারের বিরুলিয়া ও বনগাঁও ইউনিয়নের রিটার্নিং কর্মকর্তা রাকিবুজ্জামান রেনু বলেন, সালমা আক্তার বিরুলিয়ার ১, ২ ও ৩ নং ওয়ার্ডের সংরক্ষিত মহিলা আসনে নির্বাচন করার জন্য মনোনয়ন জমা দিয়েছেন। আমরা সুষ্ঠু নির্বাচন উপহার দিতে বদ্ধ পরিকর।

এফএ/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]