উপজেলা পরিষদ কার্যালয়ের ১০ গাছ কর্তন, জানেন না ইউএনও!

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি ময়মনসিংহ
প্রকাশিত: ০৫:৪৫ পিএম, ২৪ জানুয়ারি ২০২২
গাছগুলো কেটে গুঁড়ি মাটি দিয়ে এমনভাবে ঢেকে দেওয়া হয় যাতে বোঝা না যায় এখানে গাছ ছিল। ছবি-জাগো নিউজ

ময়মনসিংহের নান্দাইলে উপজেলা পরিষদ কার্যালয়ের ভেতরের ১০টি গাছ কেটে নিয়ে গেছে দুর্বৃত্তরা। তবে, বিষয়টি জানেন না বলে জানিয়েছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও)।

শুক্রবার (২১ জানুয়ারি) সকাল থেকে উপজেলা পরিষদ কার্যালয়ের ভেতর থেকে গাছ কাটার ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় সূত্র জানায়, ঘটনার দিন সকাল থেকে উপজেলা পরিষদ কার্যালয়ের ভেতরের ১০টি গাছ কাটা হয়। তিন থেকে চারজন শ্রমিক একেকটি গাছ কাটেন। গাছগুলো কেটে গুঁড়ি মাটি দিয়ে এমনভাবে ঢেকে দেওয়া হয় যাতে বোঝা না যায় এখানে গাছ ছিল। গাছগুলো কাটার সময় উপজেলা পরিষদের আশপাশে কাউকে যেতে দেওয়া হয়নি। গাছগুলো কেটে ওইদিনই উপজেলা পরিষদ থেকে বের করা হয় বলে জানান প্রত্যক্ষদর্শীরা।

jagonews24

নান্দাইল উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম ভুইয়া জাগো নিউজকে বলেন, ‘শুক্রবার উপজেলা পরিষদ কার্যালয়ের পুরাতন কোর্ট বিল্ডিং কার্যালয়ের সামনে থেকে নয়টি মেহগনি গাছ ও একটি আমগাছ কাটা হয়েছে। গাছগুলোর আনুমানিক দাম ৪ থেকে ৫ লাখ টাকা।’

কে বা কারা গাছগুলো কেটেছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘কার নির্দেশে গাছ কাটা হয়েছে বিষয়টি আমার জানা নেই। তবে, গাছগুলো যেহেতু উপজেলা পরিষদ কার্যালয়ের ভেতরের, বিষয়টি অবশ্যই উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জানেন।’

এ বিষয়ে কথা হয় উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান হাসান মাহমুদ জুয়েলের সঙ্গে। তিনি জাগো নিউজকে বলেন, ‘আপনি মোবাইল ফোনে সাংবাদিক পরিচয় দিলেইতো বোঝা যাবে না, আপনি সাংবাদিক? আপনি অফিসে আসেন, সামনে বসে এ বিষয়ে কথা হবে।’

jagonews24

জানতে চাইলে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. আবুল মনসুর বলেন, ‘আপনার কাছেই প্রথম শুনলাম উপজেলা পরিষদ কার্যালয়ের গাছ কাটা হয়েছে। কে বা কারা গাছ কেটেছি, বিষয়টি আমার জানা নেই। খোঁজ নিয়ে এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

উপজেলা পরিষদ এলাকায় অবশ্যই সিসি ক্যামেরা স্থাপন করা আছে। সেই ভিডিও দেখানো যাবে কি না জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘সিসি ক্যামেরার ফুটেজ দেওয়ার নিয়ম নেই।’

এ বিষয়ে জেলা প্রশাসক (ডিসি) এনামুল হক জাগো নিউজকে বলেন, ‘বিষয়টি আপনার কাছেই প্রথম শুনলাম। এ বিষয়ে খোঁজখবর নিয়ে দোষীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

মঞ্জুরুল ইসলাম/এসআর/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - jago[email protected]