রংপুরে হত্যা মামলায় যুবকের মৃত্যুদণ্ড

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক রংপুর
প্রকাশিত: ০৩:৫৬ পিএম, ২৬ জানুয়ারি ২০২২

রংপুর নগরীর ৩৩নং ওয়ার্ডের মেকুরা মধ্যপাড়া গ্রামের জুয়েল রানা (২৮) নামে এক ব্যবসায়ীকে হত্যার দায়ে একজনের মৃত্যুদণ্ড ও অপরজনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। এছাড়া একজন খালাস পেয়েছেন।

বুধবার (২৬ জানুয়ারি) দুপুরে রংপুরের অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালত-২ এর বিচারক মো. তারিখ হোসেন এ রায় ঘোষণা করেন।

মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামি হলেন, রংপুরের পীরগাছা উপজেলার দেউতি গ্রামের আফছার আলীর ছেলে মেহেদী হাসান সাগর (২৫) এবং যাবজ্জীবন দণ্ডপ্রপ্ত শাকিল মিয়া (২৫) একই গ্রামের দৌলত মিয়ার ছেলে।

মামলা সূত্রে জানা যায়, মেকুরা মধ্যপাড়া গ্রামের আবু সিদ্দিক মিয়ার ছেলে জুয়েল রানার জমি চাষ করার জন্য নিজস্ব ট্রাক্টর ও ট্রলি ছিল। সেগুলো ভাড়া দিতেন এবং নিজেও চালাতেন। বালু উত্তোলন নিয়ে আসামিদের সঙ্গে জুয়েলের বিরোধ চলছিল। ঘটনার দিন ২০১৮ সালের ২৬ এপ্রিল সন্ধ্যার পর মোটরসাইকেল নিয়ে বাড়ি থেকে বেরিয়ে আর ফিরেননি তিনি। পরের দিন সকালে মেকুরা পাঠানটারী গ্রামের ঘাঘট নদীর তীরে একটি ভুট্টা ক্ষেতে মাথা পুঁতে রাখা অবস্থায় তার মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।
এ ঘটনায় জুয়েলের ছোটভাই জাকির হোসেন বাদী হয়ে জুয়েলের বন্ধু সাগর ও শাকিলসহ ট্রাক্টরচালক আব্দুল মালেক (২৪) এবং মালেকের সহকারী আমিনুর রহমানকে (১৭) আসামি করে হত্যা মামলা করেন।

প্রায় চার বছর বিচারকার্য চলার পর বুধবার রায় ঘোষণা করা হয়। রায়ে অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় মালেককে খালাস এবং আমিনুর রহমানের বয়স কম হওয়ায় তার বিচারকার্য শিশু আদালতে চলছে বলে জানান অতিরিক্ত পাবিলিক প্রসিকিউটর (এপিপি) শাহ মো. নয়ন্নুর রহমান টফি।

মামলার বাদী জাকির হোসেন রায়ে সন্তুষ্ট হলেও মালেকের বিষয়ে আইনজীবীর সঙ্গে আলোচনা করে উচ্চ আদালতে যাবেন বলে জানান।

জিতু কবীর/এএইচ/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]