সিলেটে বন্যার্তদের পাশে নায়েক সফির মানবিক টিম

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক সিলেট
প্রকাশিত: ০৯:৫৫ পিএম, ২৪ মে ২০২২

সিলেটে বন্যাদুর্গতদের পাশে দাঁড়িয়েছে সিলেট মহানগর পুলিশের নায়েক সফি আহমদের স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন মানবিক টিম সিলেট। কখনো হাঁটু বা কোমরপানি, আবার কখনো নৌকা নিয়ে নায়েক সফির নেতৃত্বে বানভাসি মানুষের কাছে খাবার পৌঁছে দিচ্ছেন স্বেচ্ছাসেবীরা।

সিলেট নগর ও বিভিন্ন উপজেলায় বন্যায় দুর্ভোগে পড়া মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছে সংগঠনটি। বিনামূল্যে শুকনা খাবার, বিশুদ্ধ পানি সরবরাহ, নগদ অর্থ ও ওষুধপত্র বিতরণ করছেন তারা।

Sylhet-(4).jpg

করোনাকালে গত দুই বছর ধরে প্রতি ঈদে নতুন পোশাক ও খাদ্যসামগ্রী নিয়ে অসহায় শ্রমজীবী শিশু ও শিক্ষার্থীদের পাশে দাঁড়িয়েছিলেন নায়েক সফি। পরে ২০২১ সালে গঠন করেন মানবিক টিম সিলেট।

এবার বন্যার শুরুতে সিলেট নগরে বিশুদ্ধ পানির তীব্র সংকট দেখা দিলে তার সংগঠনের উদ্যোগে পানি সরবরাহ করা হয়। এখনো তা অব্যাহত রয়েছে। বিশুদ্ধ পানির অভাবে বন্যা উপদ্রুত এলাকাগুলোর মানুষের মধ্যে নানা ধরনের পানিবাহিত রোগ ছড়িয়ে পড়ায় ওইসব এলাকায় ওষুধও বিতরণ করা হচ্ছে। এছাড়া বন্যার কারণে অনেকেই ঘরে রান্না করতে না পারায় তাদের মাঝে শুকনা খাবার ও নগদ অর্থ বিতরণ করছে টিম সিলেট।

jagonews24

সিলেট নগরের কদমতলির বাঁধের মুখ, শাহজালাল উপশহরের এ, ই, সি, জে, জি, এইচ ব্লক; লামাপাড়া, ঘাসিটুলা, ইউসেপ ঘাসিটুলা টেকনিক্যাল স্কুল, কলাপাড়া, কামালগড়, মাছুমপুর, ছড়ারপাড়, বেতেরবাজার, সদর উপজেলার জালালাবাদ ইউনিয়নের বিভিন্ন ওয়ার্ড ও জৈন্তাপুরের বদ্দনা, সেনগ্রামে নানা ধরনের সহায়তা দেন তারা।

মানবিক টিম সিলেটের প্রধান সমন্বয়ক সিলেট মহানগর পুলিশের মিডিয়া অ্যান্ড কমিউনিটি সার্ভিসের নায়েক সফি আহমেদ।

jagonews24

তিনি জাগো নিউজকে জানান, গত এক সপ্তাহে প্রায় ১৪ হাজার লিটার বিশুদ্ধ পানি বন্যাদুর্গত এলাকায় সরবরাহ করা হয়েছে। প্রতিদিন গড়ে দুই হাজার লিটারের বেশি বিশুদ্ধ পানি বিতরণ করা হয়েছে। জৈন্তাপুর ও জালালাবাদে দুই শতাধিক মানুষকে খাদ্যসামগ্রী দেওয়া হয়।

সফি আহমেদ বলেন, ‘শুকনা খাবার ও বিশুদ্ধ পানির চাহিদা অনেক। বন্যার্তরা সাহায্যের অপেক্ষায় আছেন। আমরা আমাদের সামর্থ্য অনুযায়ী কাজ করছি। বন্যার্তদের সহায়তায় এ রকম আরও অনেক টিম প্রয়োজন।’

ছামির মাহমুদ/এসআর/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]