জমির বিরোধে টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারের ওপর হামলা

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি ময়মনসিংহ
প্রকাশিত: ০৮:৫৩ পিএম, ২৩ জুন ২০২২

ময়মনসিংহের ভালুকায় জমিসংক্রান্ত বিরোধের জেরে প্রতিপক্ষের ধারালো অস্ত্রের আঘাতে গুরুতর আহত হয়েছেন রাশেদ সরকার (৩৫) নামের একজন টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ার।

বুধবার (২২ জুন) রাত সাড়ে ৯টার দিকে উপজেলার কাচিনা ইউনিয়নের কাদিগড় গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

আহত রাশেদ সরকার ওই এলাকার শামছুল হকের ছেলে। তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এ ঘটনায় শামছুল হক ভালুকা মডেল থানায় একটি অভিযোগ করেছেন।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানায়, কাদিগড় গ্রামের হোসেন আলী সরকারের ছেলে শফি সরকারের সঙ্গে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছিল রাশেদ সরকারের। বুধবার রাতে রাশেদ সরকার মোটরসাইকেলযোগে কর্মস্থলে রওনা হন। পথে আগে থেকে ওতপেতে থাকা শফি সরকার, তার স্ত্রী লাকী আক্তার (৩৮), ছেলে লিমন সরকারসহ (২১) অজ্ঞাতপরিচয় আরও কয়েকজন দেশীয় অস্ত্র নিয়ে মোটরসাইকেলের গতিরোধ করে।

এ সময় উভয়ের মধ্যে কথা-কাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে দেশীয় অস্ত্র দা, রড দিয়ে রাশেদ সরকারকে কুপিয়ে ও পিটিয়ে জখম করেন তারা। খবর পেয়ে রাশেদের স্বজনরা এসে তাকে উদ্ধার করে ভালুকা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। তিনি বর্তমানে সেখানে চিকিৎসাধীন।

এ বিষয়ে ভুক্তভোগীর বাবা শামছুল হক বলেন, জমি নিয়ে বিরোধের জেরে প্রতিপক্ষ শফি সরকার সপরিবারে আমার ছেলের ওপর হামলা করেছে। আমরা এ ঘটনার বিচার চাই।

জানতে চাইলে অভিযুক্ত শফি সরকার বলেন, রাশেদকে কেউ মারধর করেননি। কথা-কাটাকাটির এক পর্যায়ে ধাক্কায় পড়ে গিয়ে টিনে লেগে তার মাথা কেটে গেছে।

স্থানীয় ইউপি মেম্বার কামাল হোসেন বলেন, ‘শফি সরকারের সঙ্গে শামছুল হকের জমি নিয়ে বিরোধ আছে। তবে গতরাতে মারধর করার বিষয়টি আমার জানা নেই। দুই পক্ষের কেউই আমার কাছে আসেনি।’

এ বিষয়ে ভালুকা মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কামাল হোসেন বলেন, অভিযোগ এখনো আমার হাতে আসেনি। এ বিষয়ে তদন্ত করে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

মঞ্জুরুল ইসলাম/এসআর/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]