মেয়েকে উত্ত্যক্তের প্রতিবাদে বাবাকে কুপিয়ে হত্যা, দুজনের ফাঁসি

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক রংপুর
প্রকাশিত: ০৮:৩৭ পিএম, ৩০ জুন ২০২২
মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত বাবা ও ছেলে

রংপুরের কাউনিয়ায় মেয়েকে উত্ত্যক্তের প্রতিবাদ করায় বাবা আবুল বাশারতকে কুপিয়ে হত্যা মামলায় দুই আসামিকে ফাঁসির আদেশ দিয়েছেন আদালত।

বৃহস্পতিবার (৩০ জুন) বিকেলে রংপুরের অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালত-২ এর বিচারক মো. তারিখ হোসেন আসামিদের উপস্থিতিতে এ রায় দেন।

দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন কাউনিয়া উপজেলার টেপামধুপুর ইউনিয়নের বিশ্বনাথ গ্রামের নুর আমিন ও তার ছেলে মাহবুর ইসলাম।

এছাড়া অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় অন্য দুই আসামি মাইদুল এবং মাহফুজার রহমানকে খালাস দেওয়া হয়েছে।

রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী নয়নুর রহমান টফি বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, কাউনিয়া উপজেলার জিগাবাড়ি গ্রামের আবুল বাশারতের মেয়েকে স্কুলে যাওয়া-আসার পথে প্রায়ই উত্ত্যক্ত করতেন পাশের বিশ্বনাথপুর গ্রামের নুর আমিনের ছেলে মাহবুর ইসলাম। বিষয়টি আবুল বাশারত ছেলের বাবা নুর আমিনকে জানান। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে উল্টো আবুল বাশারতকে হত্যার হুমকি দেন মাহবুর।

একপর্যায়ে ২০১৮ সালের ২৫ নভেম্বর আবুল বাশারতের ওপর হামলা হয়। গুরুতর অবস্থায় তাকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হলে চিকিৎসাধীন তিনি মারা যান।

এ ঘটনায় আবুল বাশারতের স্ত্রী মর্জিনা বেগম বাদী হয়ে মাহবুর ইসলাম, তার বাবা নুর আমিনসহ সাতজনের বিরুদ্ধে কাউনিয়া থানায় মামলা করেন। পুলিশ তদন্ত শেষে চার আসামির বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দাখিল করেন।

মামলায় ২০ জন সাক্ষীর সাক্ষ্যগ্রহণ ও জেরা শেষে নুর আমিন ও তার ছেলেকে ফাঁসির আদেশ দেন বিচারক। সেইসঙ্গে তাদেরকে ১০ হাজার টাকা করে জরিমানা করা হয়।

আইনজীবী টফি বলেন, এ রায়ের মধ্য দিয়ে ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। ফাঁসির রায় দ্রুত কার্যকরের দাবি জানান তিনি।

তবে আসামিপক্ষের আইনজীবী রশীদ চৌধুরী দাবি করেন, তারা ন্যায্যবিচার পাননি। এ আদেশের বিরুদ্ধে উচ্চ আদালতে আপিল করবেন।

জিতু কবীর/এমআরআর/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]