মিরসরাইয়ে ট্রেন দুর্ঘটনা: এক সপ্তাহেও প্রতিবেদন দেয়নি তদন্ত কমিটি

জাগো নিউজ ডেস্ক
জাগো নিউজ ডেস্ক জাগো নিউজ ডেস্ক মিরসরাই (চট্টগ্রাম)
প্রকাশিত: ১১:৫১ এএম, ০৫ আগস্ট ২০২২

চট্টগ্রামের মিরসরাইয়ে ট্রেনের ধাক্কায় ১১ জন নিহতের ঘটনায় এখনো তদন্ত প্রতিবেদন দিতে পারেনি গঠিত দুটি তদন্ত কমিটি। ঘটনার এক সপ্তাহ হলেও তদন্তের স্বার্থে আরও সময় দেওয়া হয়েছে কমিটি দুটিকে।

শুক্রবার (৫ আগস্ট) সকালে বিষয়টি জাগো নিউজকে নিশ্চিত করেছেন রেলওয়ে পূর্বাঞ্চলের মহাব্যবস্থাপক মো. জাহাঙ্গীর হোসেন।

২৯ জুলাই দুর্ঘটনার পরপরই  দুটি তদন্ত কমিটি করে তিন কার্যদিবসের মধ্যে প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশনা দিয়েছিলেন সংশ্লিষ্টরা। পূর্ব রেলের অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী আরমান হোসেনকে প্রধান করে একটি ও বিভাগীয় পরিবহন কর্মকর্তা (ডিটিও) আনসার আলীকে প্রধান করে আরেকটি কমিটি গঠন করা হয়। কমিটি দুটিতে চারজন করে সদস্য রাখা হয়েছে।

৩১ জুলাই থেকে কার্যক্রম শুরুর পর নির্ধারিত সময় অনুযায়ী ২ আগস্ট তদন্ত শেষ হওয়ার কথা। তবে উভয় কমিটির আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে তদন্তের সময়সীমা আরও তিন কার্যদিবস বাড়ানো হয়েছে বলে জানিয়েছেন রেলওয়ে পূর্বাঞ্চলের মহাব্যবস্থাপক মো. জাহাঙ্গীর হোসেন। তবে মঙ্গলবারও তদন্ত প্রতিবেদদন জমা দিতে পারেনি দুটি কমিটি।

জাহাঙ্গীর হোসেন বলেন, আগামী সপ্তাহের শুরু অথবা মাঝামাঝি সময়ে তদন্ত রিপোর্ট জমা দিতে পারে। গঠিত কমিটিগুলো তদন্তের স্বার্থে ব্যাপকভাবে কাজ করছে। প্রত্যক্ষদর্শী, যাত্রী, স্থানীয় বাসিন্দা, আহত হয়ে যারা চিকিৎসাধীন আছে তাদের এবং রেলসংশ্লিষ্ট লোকজনের বক্তব্য নিয়ে কাজ করতে সময় লাগছে। এছাড়া টেকনিক্যাল বিষয়গুলো খতিয়ে দেখবে। এরপর প্রতবেদন জমা দেবে। তাড়াহুড়ো না করে সময় নিয়ে তদন্তের কথা বলা হয়েছে।

দুর্ঘটনায় নিহত ১১ জনের সবাই মাইক্রোবাসের আরোহী ছিলেন। তাদের সবাই হাটহাজারী উপজেলার চিকনদন্ডী ইউনিয়নের খন্দকিয়া ও আশপাশের গ্রামের বাসিন্দা। এদের মধ্যে ৯ জন বিভিন্ন স্কুল-কলেজের ছাত্র। খন্দকিয়া যুগীরহাট এলাকার আরএনজে কোচিং সেন্টারের এবারের এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নেওয়া বিদায়ী শিক্ষার্থীদের নিয়ে চার শিক্ষক পিকনিকের উদ্দেশ্যে খৈয়াছড়া ঝরনায় বেড়াতে গিয়েছিলেন।

২৯ জুলাই দুপুর ১টার দিকে উপজেলার পূর্ব খৈয়াছড়া গ্রামের ঝরনা এলাকায় ট্রেনের ধাক্কায় মাইক্রোবাসে থাকা ১১ জন নিহত। এ সময় আহত হন আরও পাঁচজন। আহতদের উদ্ধার করে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

এসজে/জিকেএস

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।