রাজশাহীতে বাড়তি দামে তেল বিক্রি নিয়ে হাতাহাতি

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক
বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়
প্রকাশিত: ০৩:৫১ এএম, ০৬ আগস্ট ২০২২

অডিও শুনুন

দাম বৃদ্ধির ঘোষণার সঙ্গে সঙ্গেই বাড়তি দামে জ্বালানি তেল বিক্রি শুরু করে রাজশাহী মহানগরীর ‘নয়ান পেট্রলপাম্প’ কর্তৃপক্ষ। বাড়তি দামে তেল বিক্রিতে বাধা দিলে গ্রাহক ও মালিকপক্ষের মধ্যে হাতাহাতি শুরু হয়। পরে পুলিশ এসে তা নিয়ন্ত্রণে আনে।

শুক্রবার (৫ আগস্ট) দিবাগত রাত ১টার দিকে রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (রুয়েট) সামনে কাজলা এলাকায় অবস্থিত ‘নয়ান পেট্রলপাম্পে’ এই হাতাহাতির ঘটনা ঘটে।

এ বিষয়ে ভোক্তা মিলন জাগো নিউজকে বলেন, ‘আমি রাত সাড়ে ১১টায় পাম্পে আসি। তখন থেকে তেল বিক্রি বন্ধ করে দেয় মালিকপক্ষ। তার পরিপেক্ষিতে আমরা আন্দোলন শুরু করলে তারা রাত ১টা পর্যন্ত নির্দিষ্ট দাম রাখবেন বলে আমাদের আশ্বস্ত করে। কিন্তু ১২টা বাজতেই তারা দাম বাড়িয়ে দেয়। আমি প্রতিবাদ করতে গেলে মালিকপক্ষের লোকজন আমাকে মারতে আসে। একপর্যায়ে পুলিশ এসে আমাকে রক্ষা করে।

এ বিষয়ে পাম্প কর্তৃপক্ষের কাছে জানতে চাইলে তারা কোনো মন্তব্য করতে রাজি হননি।

মতিহার থানার পরিদর্শক আনোয়ার আলী তুহিন জাগো নিউজকে বলেন, হাতাহাতির সময় আমরা আশপাশেই ছিলাম। হাতাহাতি দেখে ভোক্তা ও মালিকপক্ষকে আলাদা করে সমাধান করে দেই। আমার টিম সার্বক্ষণিক পাম্পের কাছেই থাকবে। আশা করি আর কোনো সমস্যা হবে না।

এদিকে জ্বালানি তেলের দাম বৃদ্ধির খবর ছড়িয়ে পড়ার সঙ্গে সঙ্গে রাজশাহীর পেট্রলপাম্পগুলোতে তেল কেনার জন্য প্রতিযোগিতা শুরু হয়। তবে কোনো পাম্পেই আগের দামে তেল পাওয়া যাচ্ছে না বলে ক্ষোভ জানিয়েছেন গাড়িচালকরা।

মোটরসাইকেলে তেল লোড করতে আসা মোমিনুল জাগো নিউজকে বলেন, আমি রাত ১২টার পর এসেছি। ২০০ টাকা দিয়ে দুই লিটার নিতে হয়েছে। এরই মধ্যে তেলের নতুন মূল্য কার্যকর শুরু হয়েছে। সেই দামেই আমাদের তেল ক্রয় করতে হয়েছে।

jagonews24

আগাম তেল লোড নেওয়ার জন্য বিনোদনপুর থেকে পাম্পে এসেছেন মিরাজুল ইসলাম। তিনি বলেন, আমি চাকরি করি, তেল লোড করতেই হবে, কম দামে হোক আর বেশি দামেই হোক। তবে সরকারের রাতারাতি দাম বাড়িয়ে দেওয়া নিয়ে প্রশ্ন তোলেন এ ভোক্তা।

পাম্পে তেল কিনতে আসা রাকিবুল ইসলাম বলেন, কাল থেকে (শুক্রবার রাত ১২টার পর) তেলের দাম বৃদ্ধি করা হয়েছে। এজন্য আজ গাড়ির ট্যাংক ফুল করে নিচ্ছি। তবে তেলের দাম এত বাড়ানো উচিত হয়নি।

বিশ্ববাজারের সঙ্গে সমন্বয় করে দেশের বাজারে জ্বালানি তেলের দাম বাড়ানো হয়েছে। শুক্রবার রাত ১২টা থেকে এটি কার্যকর হবে। নতুন দাম অনুযায়ী ডিজেল ও কেরোসিন প্রতি লিটার ১১৪ টাকা, অকটেন ১৩৫ এবং পেট্রল ১৩০ টাকা করা হয়েছে।

মনির হোসেন মাহিন/ইএ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]