অটোরিকশার ভাড়া বাড়ানোর দাবিতে রাসিক ভবন ঘেরাও

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি রাজশাহী
প্রকাশিত: ০৫:০১ পিএম, ২৮ আগস্ট ২০২২

রাজশাহীতে ভাড়া বাড়ানোর দাবিতে অটোরিকশা চলাচল বন্ধ করে দিয়েছেন চালকরা। তাদের আন্দোলনের কারণে সকাল থেকেই আটোরিকশাশূন্য রাজশাহী নগরী। এতে চরম দুর্ভোগে পড়েছেন সাধারণ যাত্রীরা।

রোববার (২৮ আগস্ট) ভোর থেকেই অটোচলাচল বন্ধ করে সাধারণ চালক ও মালিকদের ব্যানারে রাজশাহী সিটি করপোরেশনের প্রধান ফটক ঘেরাও করে তারা বিক্ষোভ করেন।

সরেজমিন ঘুরে দেখা গেছে, এই সুযোগকে কাজে লাগিয়ে যে দু-একটি অটোরিকশা চলছে, সেগুলোতে ভাড়া চাওয়া হচ্ছে দুই থেকে তিনগুণ। ভদ্রা থেকে রেলগেটের ভাড়া সাত টাকা হলেও চাচ্ছেন ২০ টাকা।

রাস্তায় চলাচলরত অটোচালকরা বলেন, আমরা সকালে গ্যারেজ থেকে গাড়ি বের করে রাস্তায় এলে চাকার হাওয়া ছেড়ে দেন আন্দোলনকারীরা। এতে যাত্রী নিয়ে আমরা বিপদে পড়েছি।

তারা আরও বলেন, আগে থেকেই আমাদের ভাড়া বাড়ানো বা অটোরিকশা চলাচল বন্ধের বিষয়ে জানানো হয়নি। অটোচালকদের একটি পক্ষ রাস্তায় বিভিন্ন মোড়ে অবস্থান নিয়ে আন্দোলন করছেন।

কলেজছাত্রী জাকিয়া ইয়াসমিন বলেন, ‌‘লক্ষ্মীপুর থেকে রাজশাহী কলেজে যাবো। রাস্তায় বের হয়ে দেখি অটোরিকশা চলাচল বন্ধ। দু-একটা দেখা গেলেও ৫ টাকার ভাড়া চায় ২৫ টাকা। আমরা শিক্ষার্থীরা বেকায়দায় পড়েছি।’

অটোরিকশা বন্ধ থাকায় হেঁটে কলেজে যাচ্ছিলেন শিক্ষার্থী মনির হোসেন। তিনি বলেন, এই মুহূর্তে নগরীতে স্বল্প পরিসরে হলেও ইন্টারসিটি বাস সার্ভিস চালু করা জরুরি। ব্যাটারিচালিত অটোরিকশা এবং রিকশাগুলো যেমন যানজট সৃষ্টি করছে তেমনি তাদের অযৌক্তিক ভাড়া দাবিতে আমাদের বিপাকে পড়তে হয়।

jagonews24

রাশেদ নামের এক পথচারি বলেন, ব্যবসার কাজে বাইরে বের হয়েছি। রাস্তায় কোন ব্যাটারি চালিত অটো রিক্সা না দেখে গেছি। বিনোদপুর থেকে রেলগেটের উদ্দেশ্যে রওনা হযয়েছি। রিক্সাযর ভাড়া ২০ টাকা হলেও ভাড়া চাওয়া হয়েছে ৮০ টাকা। যা স্বাভাবিক অবস্থার চাইতে চার গুণ।

অটোরিকশা মালিক সমিতির দাবি, তারা এর সাথে সম্পৃক্ত নয়। তবে অটোচালকদের হয়ে স্থানীয় একজন কাউন্সিলর উপদেষ্টা হিসেবে কাজ করছেন বলে জানা গেছে। তিনিই অটোচালকদের উসকে দিচ্ছেন ভাড়া বাড়ানোর জন্য অটোরিকশা চলাচল বন্ধ করে যাত্রীদের জিম্মি করতে।

এ বিষয়ে ব্যাটারিচালিত অটোরিকশা মালিক সমিতির সভাপতি সাগর বলেন, ‘আমাদের না জানিয়েই একটি পক্ষ ভাড়া বৃদ্ধির দাবিতে হঠাৎ অটোরিকশা চলাচল বন্ধ করে দিয়েছে। আমরা এ বিষয়ে কিছু জানি না বা জড়িত না। নওদাপাড়া ও তেরখাদিয়া ডাবতলা মোড়ে একটি সংগঠন আমার কাছে এসেছিল। আমি তাদের কথায় পাত্তা দেয়নি।’

তাদের নাম ও সংগঠনের নাম জানতে চাইলে সাগর বলেন, ‘এসবের পেছনে রাজশাহী সিটি করপোরেশনের কয়েকজন কাউন্সিলর ইন্ধন দিচ্ছেন। আমি মেয়রের সঙ্গে আলোচনা করে কারা জড়িত তাদের নাম বলতে চাই। তারপর সাংবাদিকদের জানাবো।’

এসআর

 

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।