খাসজমি আত্মসাতে আট সরকারি কর্মচারীর কারাদণ্ড

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক খুলনা
প্রকাশিত: ০৬:১২ পিএম, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২
প্রতীকী ছবি

জালিয়াতির মাধ্যমে খাসজমি আত্মসাতের অভিযোগে সাতক্ষীরার জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের ভূমি শাখার পাঁচ কর্মচারিসহ আটজনকে ৭ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। একই সঙ্গে তাদের প্রত্যেককে ১০ হাজার টাকা করে জরিমানা করা হয়েছে।

রোববার (২৫ সেপ্টেম্বর) খুলনা বিভাগীয় স্পেশাল জজ আদালতের বিচারক ড. ওয়াহিদুজ্জামান শিকদার এ রায় দেন। রায় ঘোষণার পর আদালতে হাজির থাকা সব আসামিকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন- জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের ভূমি শাখার উচ্চমান সহকারী রেকর্ডকিপার পুতুল রানি বৈরাগী, অফিস সহকারী (রেকর্ড রুম) শ্যামল কুমার আচার্য, মুদ্রাক্ষরিক বেগম জেসমিন নাহার, সার্টিফিকেট অফিসার (রেকর্ড রুম) মো. সামছুজ্জামান, অফিস সহকারী আফসার উদ্দিন ও আব্দুল মজিদ সরদার, আলী সরদার এবং আব্দুর রাজ্জাক।

দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) আইনজীবী অ্যাডভোকেট মজিবর রহমান জানান, সাতক্ষীরা শ্যামনগরে সরকারি খাসজমি জালিয়াতির অভিযোগে ২০১৭ সালে তাদের বিরুদ্ধে মামলা করেন সিআইডির উপ-পরিদর্শক মোস্তফা আব্দুল হালিম। পরে তদন্ত কর্মকর্তা দুদক, খুলনা সমন্বিত জেলা কার্যালয়ের উপ-সহকারী পরিচালক এবিএম আব্দুস সবুর আসামিদের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন।

একইদিন অন্য একটি মামলায় শামীমা আক্তার, শ্যামল কুমার আচার্য, জেসমিন নাহার, সেলিমা সুলতানা, আক্তার উদ্দিন ও মোহাম্মদ হোসেনকে ৭ বছর কারাদণ্ড ও ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। এ মামলার সাজাপ্রাপ্ত আসামিদেরও কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

আলমগীর হান্নান/আরএইচ/জিকেএস

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।