নামাজরত অবস্থায় ছুরিকাঘাত, হামলাকারী গ্রেফতার

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি রাজশাহী
প্রকাশিত: ০৮:৩১ পিএম, ০৭ অক্টোবর ২০২২

রাজশাহীর বাঘা উপজেলায় নামাজ পড়া অবস্থায় এক যুবককে ছুরিকাঘাত করা হয়েছে। প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে তাকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (৬ অক্টোবর) সন্ধ্যায় উপজেলার কলিগ্রাম জামে মসজিদে মাগরিবের নামাজ পড়া অবস্থায় এ হামলার ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় শুক্রবার (৭ অক্টোবর) মনিরুল ইসলাম জমজম (৩৮) নামের একজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

হামলার শিকার যুবকের নাম আবু ফজল সিদ্দিক তাপস (৩৭)। তিনি উপজেলার উত্তর কলিগ্রামের মরহুম বীর মুক্তিযোদ্ধা আবুল হোসেন ছেলে। তাপস অগ্রণী ব্যাংকের বাজুবাঘা শাখার কর্মচারী।

বাঘা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সাজ্জাদ হোসেন এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় কলিগ্রাম জামে মসজিদে মাগরিবের নামাজ পড়ছিলেন আবু ফজল। ইমামের পেছনে ফরজ নামাজ পড়া অবস্থায় তাকে ছুরিকাঘাত করা হয়। অভিযুক্ত মনিরুল ইসলাম মসজিদের ভেতরে প্রবেশ করে তাকে পেছন থেকে ছুরি দিয়ে এলোপাতাড়িভাবে কুপিয়ে পালিয়ে যান।

চাকুর আঘাতে আবু ফজলের বাম হাতে জখম হয়। মসজিদের মুসল্লিরা তাকে উদ্ধার করে বাঘা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগে নিয়ে যান। তার অবস্থা বেগতিক হওয়ায় রাতেই তাকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়।

বাঘা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সাজ্জাদ হোসেন জানান, এ ঘটনায় রাতেই আহত ব্যক্তির ভাই আবু বাশার বাদী হয়ে মনিরুল ইসলাম জমজমের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন। শুক্রবার ভোরে গ্রামের একটি আমবাগান থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, জায়গা-জমি সংক্রান্ত একটি মামলার সাক্ষী আবু ফজল সিদ্দিক। এই বিরোধের জেরেই মনিরুল হামলা চালিয়েছেন বলে পুলিশ জানতে পেরেছে।

এসআর/এএসএম

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।