রাজশাহীতে প্রতিপক্ষের গুলিতে আহত ১

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি রাজশাহী
প্রকাশিত: ০৮:৪৩ এএম, ০৭ ডিসেম্বর ২০২২
হাসপাতালে চিকিৎসাধীন গুলিবিদ্ধ আরিফুল আলম জন

রাজশাহীতে মাদক কারবার নিয়ন্ত্রণ নিয়ে কোন্দলের জেরে আরিফুল আলম জন (৪৫) নামের এক ব্যক্তি গুলিবিদ্ধ হয়েছেন। মঙ্গলবার (৬ ডিসেম্বর) রাত ১০টার দিকে নগরীর রাজারহাতা এলাকায় এ ঘটনা ঘটেছে।

রাজশাহী মহানগর ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মো. রাজিব গুলি চালিয়েছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। আহত আরিফুল আলম জন রাজারহাতা এলাকার আশরাফুল আলমের ছেলে। তিনি রাজশাহী মহানগর বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক আসলাম সরকারের ভাতিজা। আরিফুল নিজেও যুবদলকর্মী এবং তিনি মাদক ব্যবসা করেন বলে অভিযোগ আছে।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, মঙ্গলবার রাত ১০টার দিকে মাদক ব্যবসার নিয়ন্ত্রণ নিয়ে অভ্যন্তরীণ কোন্দলের জেরে রাজশাহী মহানগর ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মো. রাজিবের সঙ্গে বাগবিতণ্ডায় জড়ান আরিফুল আলম। এক পর্যায়ে আরিফুলের উরুতে গুলি করেন রাজিব। তাকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে নেওয়া হয়।

মাদক ব্যবসার বিরোধে নয়, রাস্তার ওপর প্রাইভেটকার রাখা নিয়ে ছাত্রলীগের সাবেক নেতা রাজিবের সঙ্গে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে গুলি চালিয়েছে দাবি করে হাসপাতালে থাকা এক নারী বলেন, ‘ছাত্রলীগের সাবেক ওই নেতা আরিফুলের মাথায় পিস্তল ধরে গুলি করার হুমকি দেন। একপর্যায়ে আরিফুলের উরুতে গুলি করে চলে যান। পরে আরিফুলকে গুরুতর আহত অবস্থায় রামেক হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়।’

তবে গুলির অভিযোগ অস্বীকার করে ছাত্রলীগের সাবেক নেতা মো. রাজিব বলেন, ‘মাদক ব্যবসা নিয়েই পার্টনারদের সঙ্গে আরিফুলের গণ্ডগোল হচ্ছিল। তার পার্টনারই গুলি করেছে বলে শুনেছি। সংবাদ পেয়ে আমরা এগিয়ে গেলে প্রত্যক্ষদর্শী বিষয়টি আমাদের জানায়। তখন আমরা চলে এসেছি।’

এ বিষয়ে রাতে নগরীর বোয়ালিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাজহারুল ইসলাম জাগো নিউজকে বলেন, ‘আসলে কী ঘটেছে তা জানতে ঘটনাস্থলেই আছি। সবার সঙ্গে কথা বলছি। বিস্তারিত জানার চেষ্টা করছি।’

আরিফুল আলম আগে বিএনপির রাজনীতিতে সক্রিয় ছিলেন। পরে নিষ্ক্রিয় হয়ে গেলেও ৩ ডিসেম্বর বিএনপির রাজশাহী বিভাগীয় গণসমাবেশ চলাকালে দুই গ্রুপের মধ্যে ধাওয়াপাল্টা-ধাওয়া ও মারামারির ঘটনায় আরিফুল আলম সক্রিয় ভূমিকা রাখেন বলে অভিযোগ উঠেছে।

এসজে/এমএস

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।