বাসা ভাড়া নেওয়ার কথা বলে ঘরে ঢুকে বৃদ্ধাকে হত্যা

উপজেলা প্রতিনিধি উপজেলা প্রতিনিধি সাভার (ঢাকা)
প্রকাশিত: ০৬:৪৩ পিএম, ০৭ ডিসেম্বর ২০২২
গ্রেফতার মমতাজ পারভীন

সাভারের বৃদ্ধা হাজেরা খাতুন (৭৩) হত্যাকাণ্ডের প্রায় ছয় মাস পর এক নারীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। ওই বৃদ্ধার বাসা ভাড়া নেওয়ার কথা বলে ঘরে ঢুকে তাকে হত্যা করেন গ্রেফতার নারী।

বুধবার (৭ ডিসেম্বর) দুপুরে সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে এ তথ্য জানিয়েছেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আব্দুল্লাহ হিল কাফি।

এর আগে মঙ্গলবার গভীর রাতে সাভারের সিআরপির ডগরমোরা এলাকার হাফিজুর রহমানের বাসা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতার নারীর নাম মমতাজ পারভীন (৪৭)। তিনি ফেনী সদরের নতুনবাড়ি গ্রামের মৃত মফিজুর রহমানের মেয়ে। মমতাজ সাভারের সিআরপির ডগরমোরা এলাকার হাফিজুর রহমানের বাসায় ভাড়া থাকতেন।

অন্যদিকে, নিহত হাজেরা খাতুন সাভারের দক্ষিণ সবুজবাগের বিনোদবাইদ এলাকার মৃত মফিজুর রহমানের স্ত্রী। তিনি তার ফ্ল্যাটে একাই বসবাস করতেন।

সংবাদ সম্মেলনে পুলিশ জানায়, সাভারের দক্ষিণ সবুজবাগের বিনোদবাইদ এলাকায় চলতি বছরের ২৮ জুন বাসা ভাড়া নেওয়ার কথা বলে নিহতের ফ্ল্যাটে প্রবেশ করেন মমতাজ পারভীন। বোরকা পরিহিত মমতাজ ফ্ল্যাটে ঢুকে হাজেরা খাতুনের হাত-পা রশি দিয়ে বেঁধে ও মুখে স্কচটেপ পেঁচিয়ে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে পালিয়ে যান। এসময় ঘরের কোনো কিছু না নিয়ে শুধু নিহতের মোবাইলফোন নিয়ে চলে যান মমতাজ। বোরকা পরে ঘরে প্রবেশ করায় তাকে বাড়ির নিরাপত্তাকর্মীসহ সিসি ক্যামেরায় শনাক্ত করা সম্ভব হয়নি। পরে উন্নত প্রযুক্তি ব্যবহার করে মমতাজকে গ্রেফতার করা হয়।

এ বিষয়ে ঢাকা জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আব্দুল্লাহ হিল কাফি বলেন, এই হত্যাকাণ্ডটি পরিকল্পিত। এই হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে অনেকের স্বার্থই জড়িত। হত্যাকাণ্ডের পেছনে আরও অনেকেই রয়েছেন। তদন্তের স্বার্থে এর বেশি তথ্য দেওয়া সম্ভব হচ্ছে না। পরবর্তীতে আরও তথ্য জানানো হবে।

মাহফুজুর রহমান নিপু/এমআরআর/এএসএম

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।