ময়মনসিংহে ঢাকাগামী যানবাহনে পুলিশের তল্লাশি

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি ময়মনসিংহ
প্রকাশিত: ০৫:১৩ পিএম, ০৯ ডিসেম্বর ২০২২

অডিও শুনুন

বিএনপির সমাবেশ ঘিরে ময়মনসিংহের বিভিন্ন স্থানে চেকপোস্ট বসিয়ে ঢাকামুখী যানবাহনে তল্লাশি করছেন আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা।

শুক্রবার (৯ ডিসেম্বর) সকাল ৮টা থেকে মহানগরীর শম্ভুগঞ্জ মোড়, রহমতপুর বাইপাস, দিঘারকান্দা বাইপাস, নান্দাইল চৌরাস্তা, ঈশ্বরগঞ্জ, চুরখাই, ত্রিশাল, ভালুকায় চেকপোস্ট বসানো হয়েছে। রাত ৮টা পর্যন্ত এই কার্যক্রম চলবে বলে জানা গেছে।

সরেজমিন নগরীর শম্ভুগঞ্জ মোড়, রহমতপুর বাইপাস, দিঘরকান্দা বাইপাসে দেখা যায়, ঢাকাগামী পরিবহন থামিয়ে প্রত্যেক যাত্রীর সঙ্গে থাকা ব্যাগে চেক করা হচ্ছে। ব্যক্তিগত গাড়ি, মোটরসাইকেল ও বিভিন্ন ধরনের গণপরিবহনে তল্লাশি করা হচ্ছে। এতে পরিবহন চলাচলও অনেক কমে গেছে। পুলিশ বলছে, নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে তাদের এ কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে।

ফুলপুর থেকে গাজীপুরের মাওনাগামী বাসযাত্রী বৃদ্ধা জয়দুন নেছা বলেন, ‘আমি মাওনা থেকে টাঙ্গাইলে যাবো। রাস্তায় গাড়ি কম, পথে পথে পুলিশ চেক করছে। এজন্য কিছুটা ভয়ে আছি।’

নান্দাইল থেকে বাসযোগে ময়মনসিংহে আসা হুমায়ুন কবির বলেন, ‘নান্দাইলে বাসে ওঠার সময় পুলিশ চেক করেছে। এখন শম্ভুগঞ্জে এলাম। এখানেও গাড়ি দাঁড় করিয়ে পুলিশ চেক করছে।’

দিঘারকান্দা বাইপাস শ্রমিক ইউনিয়নের কোষাধ্যক্ষ রফিকুল ইসলাম বলেন, পুলিশের তল্লাশির কারণে রাস্তায় যানবাহন কমে গেছে। এতে যাত্রীর চাপও কমেছে।

ময়মনসিংহ কোতোয়ালি মডেল থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) হারুন অর রশিদ বলেন, বিএনপির সমাবেশকে কেন্দ্র জনগণের জানমালের নিরাপত্তায় সকাল ৮টা থেকে মহানগরীর রহমতপুর বাইপাস, শম্ভুগঞ্জ মোড়, দিঘারকান্দা বাইপাসসহ গুরুত্বপুর্ণ এলাকায় চেকপোস্ট বসানো হয়েছে। প্রত্যেকটি চেকপোস্টে যাত্রীবাহী বাস, ব্যক্তিগত গাড়ি, মোটরসাইকেল ও বিভিন্ন ধরনের গণপরিবহনে তল্লাশি করা হচ্ছে। এটা চলবে রাত ৮টা পর্যন্ত।

এ বিষয়ে জেলা পুলিশ সুপার মাসুম আহমেদ ভুঁঞা বলেন, ‘ময়মনসিংহে আইজিপি স্যারের আগমন ও ১৬ ডিসেম্বর উপলক্ষে জেলার আটটি স্থানে চেকপোস্ট বসানো হয়েছে। নিরাপত্তা জোরদার করতে এসব চেকপোস্ট বসানো হয়েছে। চেকপোস্টের কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে।

মঞ্জুরুল ইসলাম/এসআর/এএসএম

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।