শিক্ষার্থীর শ্লীলতাহানির চেষ্টা, হাসপাতালের কর্মচারী বরখাস্ত

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি জেলা প্রতিনিধি বরিশাল
প্রকাশিত: ১০:০১ এএম, ০৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৩

বরিশাল নার্সিং কলেজের এক ছাত্রীর শ্লীলতাহানির চেষ্টার অভিযোগে শের-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ (শেবাচিম) হাসপাতালের এক কর্মচারীকে সাময়িক বরখাস্ত করেছে প্রশাসন।

সোমবার (৬ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে শেবাচিম হাসপাতালের মেডিসিন ইউনিটে এ ঘটনা ঘটে।

হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, নার্সিং কলেজের এক শিক্ষার্থী সোমবার বেলা ১১টার দিকে মেডিসিন ওয়ার্ডে চিকিৎসা নিতে যান। এ সময় ডাক্তারের সহকারী চতুর্থ শ্রেণীর কর্মচারী ইফাদ সন্যামত ওই ছাত্রীর সঙ্গে অশোভন আচরণ এবং শ্লীলতাহানির চেষ্টা করেন। এক পর্যায়ে ওই ছাত্রীর পরিচয় পত্রের (আইডি কার্ড) ছবি তুলে সামাজিক মাধ্যমে ছড়িয়ে দেন ইফাদ। এ ঘটনার বিচার দাবি করে নার্সিং কলেজের শিক্ষার্থীরা দুপুর দেড়টা থেকে ২টা পর্যন্ত শেবাচিম হাসপাতালের জরুরি বিভাগের সামনে বিক্ষোভ করেন। শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভের মুখে ওই কর্মচারীকে সাময়িক বরখাস্ত করেছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

jagonews24

আরও পড়ুন: বরিশালে পুকুরে ডুবে প্রাণ গেলো শিশুর

ভুক্তভোগী শিক্ষার্থী বলেন, আমি চিকিৎসা নিতে মেডিসিন বিভাগে যাই। সেখানে চতুর্থ শ্রেণির কর্মচারী ইফাদ সন্যামত আমার সঙ্গে খারাপ আচরণ করেন, হাত ধরে টান দেন। আমার আইডি কার্ডের ছবি তুলে ফেসবুকে পোষ্ট করেন। আমি এ ঘটনার বিচার চাই।

এ ব্যাপারে অভিযুক্ত ইফাদ সন্যামতের মোবাইল ফোন বন্ধ থাকায় তার বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

এ বিষয়ে শেবাচিম হাসপাতালের পরিচালক ডা. এইচ এম সাইফুল ইসলাম বলেন, নার্সিং কলেজের শিক্ষার্থীদের মৌখিক অভিযোগে ইফাদ সন্যামতকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। বিষয়টি তদন্ত করে চূড়ান্ত পদক্ষেপ নিতে তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। এক কার্যদিবসের মধ্যে তাদের প্রতিবেদন দিতে বলা হয়েছে।

জেএস/জিকেএস

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।