সংকট উত্তরণে ফারমার্সকে তিন মাস সময় দিল কেন্দ্রীয় ব্যাংক

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০১:০৪ পিএম, ২৯ নভেম্বর ২০১৭
সংকট উত্তরণে ফারমার্সকে তিন মাস সময় দিল কেন্দ্রীয় ব্যাংক

তারল্য সংকটসহ নানাবিধ সমস্যা উত্তরণে ফারমার্স ব্যাংককে তিন মাস সময় দিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক। বুধবার ব্যাংকটির নতুন পর্ষদের সঙ্গে বৈঠকে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের পক্ষ থেকে এই সময় দেয়া হয়। বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের এ তথ্য জানিয়েছেন ফারমার্স ব্যাংকের পরিচালক ড. মোহাম্মদ আতাহার উদ্দিন।

তিনি বলেন, আমাদের নতুন ম্যানেজমেন্ট এবং নতুন বোর্ড। তাই গভর্নরের সঙ্গে পরিচিত হতে এসেছি। এছাড়া ব্যাংকটি আমরা ভবিষ্যতে কীভাবে চালাবো এ ব্যাপারে আলোচনা হয়েছে।

তারল্য সংকট প্রসঙ্গে তিনি বলেন, আমাদের যে আর্থিক সংকট তৈরি হয়েছে তা আমরা নিজেরা দেব এবং যে বন্ড ছেড়েছি তাও কাল-পরশুর মধ্যে পেয়ে যাবো। আমরা ৫০০ কোটি টাকার দু’টি বন্ড ছেড়েছি। এটা আসলেই সংকট কেটে যাবে।

আতাহার উদ্দিন বলেন, বাংলাদেশ ব্যাংকের কাছ থেকে আমরা তিন মাসের সময় পেয়েছি। এছাড়া এমডি তার অবস্থানে থাকবে। তার ব্যাপারে বাংলাদেশ ব্যাংককে জবাব দেয়া হয়েছে।

সম্প্রতি ঋণে ব্যাপক অনিয়মের কারণে ফারমার্স ব্যাংক বড় ধরনের তারল্য সংকটে পড়ে। এ কারণে নগদ জমা বা সিআরআরের এবং সংবিধিবদ্ধ জমা বা এসএলআরের অর্থ রাখতে ব্যর্থ হয় প্রতিষ্ঠানটি। আর এ সংকট থেকে উত্তরণের উদ্যোগ নেয় কেন্দ্রীয় ব্যাংক। এ উদ্যোগের অংশ হিসেবে আজ বুধবার বিকেল ৩ টায় ফারমার্স ব্যাংকের নতুন পর্ষদের বৈঠক ডাকা হয়।

এদিকে গত সোমবার পরিচালনা পর্ষদের বিশেষ সভায় ব্যাংকটির প্রতিষ্ঠাতা সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মহীউদ্দীন খান আলমগীর চেয়ারম্যান পদ থেকে পদত্যাগ করেন। ওই দিন পদ ছাড়েন পরিচালক মাহাবুবুল হক চিশতীও (বাবুল চিশতী)। সভায় নতুন চেয়ারম্যান মোহাম্মদ মাসুদ এবং মারুফ আলমকে ভাইস চেয়ারম্যান হিসেবে নির্বাচিত করা হয়। একই সঙ্গে ব্যাংকটির নির্বাহী কমিটি, নিরীক্ষা কমিটি ও ঝুঁকি ব্যবস্থাপনা কমিটি পুনর্গঠন করা হয়।

এর আগে গত রোববার ব্যাংকটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) এ কে এম শামীমকে অপসারণের নোটিশ দেয় বাংলাদেশ ব্যাংক। ব্যাংক কোম্পানি আইনের ৪৬ ধারায় আইন লঙ্ঘন ও আমানতকারীদের স্বার্থ রক্ষায় ব্যর্থ হওয়ায় বাংলাদেশ ব্যাংক এই নোটিশ দেয়া হয়। নোটিশে আগামী সাত দিনের মধ্যে এমডিকে কেন অপসারণ করা হবে না, তা জানতে চাওয়া হয়।

এসআই/এসএইচএস/এমএস