বেসরকারি খাতের বাজেট প্রস্তাবনায় প্রবৃদ্ধি বেগবান হয়েছে

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৭:২১ পিএম, ২০ ডিসেম্বর ২০১৭

বেসরকারি খাতের বাজেটপরবর্তী মূল প্রস্তাবনাসমূহ সরকার গুরুত্বের সঙ্গে বিবেচনায় নেয়ায় অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি আরও বেগবান হয়েছে বলে জানিয়েছেন বক্তারা। একই সঙ্গে তারা জানিয়েছেন, ব্যবসায়ীদের দাবির প্রেক্ষিতেই ভ্যাট আইন, আবগারি শুল্ক ও রফতানির উৎসে কর বাতিল হয়েছে।

ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন ফেডারেশন অব বাংলাদেশ চেম্বার্স অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির (এফবিসিসিআই) বার্ষিক সাধারণ (২০১৬-১৭ অর্থবছর) সভায় বক্তারা এসব কথা বলেন।

বুধবার রাজধানীর অফিসার্স ক্লাবে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে ২০১৬-১৭ ও চলতি অর্থবছরে সংগঠনের পক্ষ থেকে নেয়া বিভিন্ন কার্যক্রম তুলে ধরা হয়। সভায় প্রয়াত ব্যবসায়ী নেতা মেয়র আনিসুল হককেও স্মরণ করা হয়।

এফবিসিসিআই সভাপতি মো. শফিউল ইসলাম মহিউদ্দিন বলেন, ব্যবসায়ীদের উদ্বেগ ও এফবিসিসিআইয়ের সুপারিশে নতুন মূল্য সংযোজন কর বা ভ্যাট আইন বাস্তবায়ন দুই বছরের জন্য স্থগিত করা হয়। একই সঙ্গে আমাদের বাজেটপরবর্তী প্রস্তাবনা অনুযায়ী ব্যাংকের আবগারি শুল্ক কমানো ও রফতানি খাতের উৎসে কর কমানোসহ বেশকিছু গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

তিনি বলেন, সিটি কর্পোরেশনের ট্রেড লাইসেন্স ফি অত্যধিক হারে বাড়ানো হলে এফবিসিসিআইয়ের পক্ষ থেকে আমরা বেসরকারি খাতের উদ্বেগ তুলে ধরি। পরবর্তীতে সিটি কর্পোরেশনের ট্রেড লাইসেন্স ফি কমিয়ে সংশোধিত গেজেট প্রকাশ করে।

একইভাবে পৌরসভার ট্রেড লাইসেন্স ফি উচ্চ হারে বাড়ানো হলে এফবিসিসিআই ফি কমানোর দাবি জানায়। পরে পৌরসভার ট্রেড লাইসেন্স ফি যুক্তিযুক্তভাবে কমিয়ে গেজেট প্রকাশ করা হয়।

দেশের অব্যাহত অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধিকে আরও বেগবান করার লক্ষ্যে বর্তমান ব্যবসাবান্ধব পরিবেশকে সুসংহত করার স্বার্থে বেসরকারি খাতের বাজেটপরবর্তী মূল প্রস্তাবনাসমূহ গুরুত্বের সঙ্গে বিবেচনায় নেয়ার জন্য সরকারকে ধন্যবাদ জানান তিনি।

সভায় এফবিসিসিআই প্রথম সহ-সভাপতি শেখ ফজলে ফাহিম, সহ-সভাপতি মো. মুনতাকিম আশরাফ, এফবিসিসিআই পরিচালকবৃন্দ এবং এফবিসিসিআই সাধারণ পরিষদের সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

এমএ/বিএ

আপনার মতামত লিখুন :