মেলায় পিরামিড দেখার সুযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৬:০২ পিএম, ১৮ জানুয়ারি ২০১৮
মেলায় পিরামিড দেখার সুযোগ

ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলায় পিরামিড দেখার সুযোগ করে দিয়েছে অলিম্পিক ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড। প্রতিষ্ঠানটির দ্বিতীয় তলায় পিরামিডের আদলে রাখা হয়েছে মমি ও ভূত। দোতলা এ প্যাভিলিয়ন তৈরি হয়েছে পিরামিডের আকৃতিতে।

প্যাভিলিয়নের দ্বিতীয় তলায় উঠে পিরামিডের দৃশ্য দেখতে হলে সেখানে থাকা অলিম্পিক পণ্যের পাঁচটি প্যাকেজ থেকে যে কোনো একটি কিনতে হবে। ১০০ টাকা থেকে ৪০০ টাকার মধ্যে পাওয়া যাবে এ প্যাকেজ। মেলার প্রধান ফটক দিয়ে প্রবেশ করে সামনে একটু এগোলে বামে তাকালেই দেখা যাবে অলিম্পিকের প্যাভিলিয়ন।

piramid

প্যাভিলিয়ন ইনচার্জ সৈয়দ নাজমুল আলম বলেন, মেলায় আমরা পাঁচটি প্যাকেজ নিয়ে এসেছি। প্রতিটি প্যাকেজের মূল্য পণ্যের প্রকৃত মূল্য থেকে কম রাখা হচ্ছে। এছাড়া ক্রেতারা যে কোনো পণ্য ১০০ টাকা দিয়ে কিনলে ১০ শতাংশ নগদ ছাড় পাচ্ছেন।

piramid

তিনি বলেন, বাণিজ্য মেলা উপলক্ষে আমরা বেলি কুকিজ, কাজু বাইট ও সফট কেক নামের তিনটি নতুন পণ্য এনেছি। এর মধ্যে বেলি কুকিজ এক প্যাকেটের মূল্য ৫০ টাকা। কাজু বাইটের প্রতি প্যাকেটের মূল্য ২০ টাকা এবং সফট কেকের প্যাকেট মূল্য ১৫ টাকা।

piramid

নাজমুল আলম আরো বলেন, মেলায় আমাদের বিশেষ আকর্ষণ পিরামিড-শো। আমাদের প্যাভিলিয়ন থেকে কেউ একটি প্যাকেজ কিনলে দেয়া হচ্ছে একটি টোকেন। সেই টোকেন দিয়ে একসঙ্গে সর্বোচ্চ দু’জন পিরামিড-শো দেখতে পাবেন। এছাড়া শিক্ষার্থীদের জন্য সকালের দিকে কিছু সময় ফ্রি এ শো দেখার সুযোগ দেয়া হচ্ছে।

piramid

অলিম্পিকের প্যাকেজ সম্পর্কে তিনি বলেন, ১০০ টাকার একটি প্যাকেজ আছে, যার প্রকৃত মূল্য ১১৮ টাকা। ২০০ টাকার প্যাকেজে পাওয়া যাচ্ছে ২৩৮ টাকার পণ্য। ৪০০ টাকার প্যাকেজে আছে ৪৮০ টাকার পণ্য। শিশুদের জন্য ১০০ টাকার কিডস প্যাকেজে পাওয়া যাচ্ছে ১১৮ টাকার পণ্য এবং কিডস ২০০ টাকার প্যাকেজে পাওয়া যাচ্ছে ২৫০ টাকার পণ্য।

piramid

বেচাবিক্রি সম্পর্কে তিনি বলেন, মেলায় পণ্য বিক্রি করা আমাদের মূল উদ্দেশ্য নয়। আমাদের পণ্য সম্পর্কে গ্রাহকদের ধারণা দেয়াই মূল উদ্দেশ্য। এরপরও গতবারের তুলনায় এবার বিক্রি ভালো। মেলার প্রথম শুক্রবার থেকেই বিক্রি বেড়েছে। দিন যত যাচ্ছে বিক্রি তত বাড়ছে। সামনের দিনগুলোতে বিক্রি আরো বাড়বে বলেও আশা প্রকাশ করেন তিনি।

এমএএস/এমএআর/আইআই