বিএবি’র অ্যাক্রেডিটেশন সনদ পেল পাঁচ ল্যাবরেটরি

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০২:০৩ পিএম, ১৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৮

আন্তর্জাতিক রফতানি বাণিজ্যে বাংলাদেশের অবস্থান শক্তিশালী করার লক্ষ্যে ৫টি দেশীয় ও বহুজাতিক ল্যাবরেটরিকে ‘অ্যাক্রেডিটেশন সনদ’ দিয়েছে বাংলাদেশ অ্যাক্রেডিটেশন বোর্ড (বিএবি)। ল্যাবরেটরিগুলো হচ্ছে, বহুজাতিক প্রতিষ্ঠান এসজিএস বাংলাদেশ লিমিটেড ও আইটিএস ল্যাবটেস্ট লিমিটেড। আর দেশীয় প্রতিষ্ঠানের মধ্যে রয়েছে টেক্সটাইল টেস্টিং ল্যাবরেটরি এসিআই সোর্সিং, মেটারিয়াল টেস্টিং ল্যাবরেটরি বিএমটিআই এবং ইউনাইটেড হসপিটাল মেডিক্যাল টেস্টিং ল্যাবরেটরি।

বৃহস্পতিবার শিল্প মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে ল্যাবরেটরিগুলোর প্রতিনিধিদের হাতে আনুষ্ঠানিকভাবে অ্যাক্রেডিটেশন সনদ তুলে দেন শিল্পসচিব মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ্। বিএবি’র মহাপরিচালক মো. মনোয়ারুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে শিল্প মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব সহিদুল ইসলাম, ইউনাইটেড হসপিটালের প্রতিনিধি অবসরপ্রাপ্ত ব্রিগেডিয়ার জেনারেল অধ্যাপক জাহিদ মাহমুদ, বিএমটিএল’র নির্বাহী পরিচালক ড. আহসানুল জলিল, এসিআই সোর্সিং এর ব্যবস্থাপক শেখ এরশাদ উদ্দিন, আইটিএস ল্যাবটেস্ট বাংলাদেশ লিমিটেডের ঊর্ধ্বতন ব্যবস্থাপক গৌতম কুমার রায়, এসজিএস বাংলাদেশ লিমিটেডের বাংলাদেশ কান্ট্রি বিজনেস ম্যানেজার আব্দুর রশিদ প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে ল্যাবরেটরির প্রতিনিধিরা বাংলাদেশে অ্যাক্রেডিটেশন কার্যক্রমে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালনের জন্য বিএবি’র প্রশংসা করেন। তারা বলেন, বিএবি’র অ্যাক্রেডিটেশন ও প্রশিক্ষণ কার্যক্রমের ফলে ইতোমধ্যে দেশে স্থাপিত স্থানীয় ও বহুজাতিক ল্যাবরেটরিগুলোর গুণগতমান বেড়েছে। এর ফলে আন্তর্জাতিক বাণিজ্যে বাংলাদেশের ল্যাবরেটরিগুলো থেকে প্রদত্ত অ্যাক্রেডিটেশন সনদ গ্রহণযোগ্য হচ্ছে। তারা বাংলাদেশ অ্যাক্রেডিটেশন বোর্ডের কর্মপরিধি বিস্তারের পাশাপাশি এর কার্যক্রম সম্পর্কে প্রচার-প্রচারণা বাড়ানোর তাগিদ দেন।

শিল্পসচিব বলেন, অতীতে পণ্যের গুণগতমানের জন্য আন্তর্জাতিক বাজারে বাংলাদেশি পণ্যের রফতানি হোঁচট খেয়েছে। এ অবস্থার উত্তরণে বর্তমান সরকার বাংলাদেশ অ্যাক্রেডিটেশন বোর্ডের কার্যক্রম জোরদার করেছে। পাশাপাশি জাতীয় মান নির্ধারণী প্রতিষ্ঠান বিএসটিআইকে শক্তিশালী করা হয়েছে। আন্তর্জাতিক বাজারে বাংলাদেশি পণ্যের রফতানি বাড়াতে বিএবি’র কর্মপরিধি সম্প্রসারণের পাশাপশি এর প্রচারণা জোরদার করা হবে। তিনি পণ্য উৎপাদন ও গুণগতমান নির্ধারণের ক্ষেত্রে স্বচ্ছতা, সততা ও ন্যায়পরায়ণতার সঙ্গে দায়িত্ব পালন করে শিল্পসমৃদ্ধ বাংলাদেশ বিনির্মাণের অভিযাত্রাকে এগিয়ে নিতে সংশ্লিষ্ট সবার প্রতি আহ্বান জানান।

এসআই/ওআর/আরআইপি

আপনার মতামত লিখুন :