গ্লোবাল কটন সামিট শুক্রবার

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৩:৩১ পিএম, ২২ ফেব্রুয়ারি ২০১৮

শুক্রবার রাজধানীর র‌্যাডিসন হোটেলে অনুষ্ঠিত হচ্ছে টেক্সটাইল ও তুলা খাতের সর্ববৃহৎ প্রদর্শনী ‘গ্লোবাল কটন সামিট।’

বাংলাদেশ টেক্সটাইল মিলস অ্যাসোসিয়েশন (বিটিএমএ) ও বাংলাদেশ কটন অ্যাসোসিয়েশনের (বিসিএ) যৌথ আয়োজনে এ সামিট অনুষ্ঠিত হবে।

এ নিয়ে বাংলাদেশে তৃতীয়বারের মতো সামিটটি আয়োজন করা হচ্ছে। রাজধানীর হোটেল র‌্যাডিসনে দুই দিনব্যাপী গ্লোবাল কটন সামিটের উদ্বোধন করবেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। বৃহস্পতিবার আয়োজক কমিটির পক্ষ থেকে এ তথ্য জানানো হয়।

বাংলাদেশে স্পিনিং মিলের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট ব্যবসায়ী ও তুলা কেনাবেচায় জড়িত কর্মকর্তারা এ সামিটে অংশগ্রহণ করবেন। এ ছাড়া দেশি-বিদেশি ব্যবসায়ী, শিপিং এজেন্ট ও মার্চেন্টরাও এতে যোগ দেবেন।

বাংলাদেশ, ভারত, সুদান, যুক্তরাজ্য, সিঙ্গাপুর, সুইজারল্যান্ড, মালি, বুরকিনা ফাসো, চাদ, তুরস্ক, ইরান ও যুক্তরাষ্ট্রসহ বিভিন্ন দেশের উল্লেখযোগ্য সংখ্যক প্রতিনিধি এতে অংশ নিচ্ছেন। আয়োজক সংগঠনগুলো জানিয়েছে, বাংলাদেশের স্পিনিং ক্ষমতা ভবিষ্যতে আরও বাড়বে। ফলে আগামীতে অতিরিক্ত ১৫ লাখ বেল তুলার প্রয়োজন হবে। গ্লোবাল কটন সামিট এ লক্ষ্য অর্জনে ভূমিকা রাখতে পারবে বলে আশা করা হচ্ছে।

২০০৫ থেকে ২০১৬ সালের মধ্যে বাংলাদেশ তুলা আমদানি করেছে প্রায় ৬১ লাখ বেল। তুলা আমদানিতে গত এক দশকে প্রবৃদ্ধি হয়েছে ১০০ শতাংশের বেশি। ২০২১ সালে বাংলাদেশ টেক্সটাইল ও পোশাক রফতানি থেকে ৫ হাজার কোটি ডলার আয়ের স্বপ্ন দেখছে। এ স্বপ্ন বাস্তবায়ন করতে হলে ইয়ার্ন ও ফ্যাব্রিকের নিরবচ্ছিন্ন সরবরাহ নিশ্চিত করতে হবে। সুতা তৈরির প্রয়োজনীয় কাঁচা তুলার উৎ ও সরবরাহ অক্ষুণ্ন রাখতে হবে। গ্লোবাল কটন সামিট এক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে বলে আশা করা হচ্ছে।

এমএ/এনএফ/জেআইএম

আপনার মতামত লিখুন :