সূচকে মিশ্র প্রবণতা, কমেছে লেনদেন

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৪:২৩ পিএম, ০৪ এপ্রিল ২০১৮

সপ্তাহের চতুর্থ কার্যদিবস বুধবার প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) এবং অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) মূল্যসূচকে মিশ্র প্রবণতা দেখা দিয়েছে। ডিএসইতে প্রধান মূল্যসূচক বাড়লেও, সিএসইর সার্বিক মূল্যসূচক কমেছে।

এদিন মূল্যসূচকে মিশ্র প্রবণতা দেখা দিলেও উভয় বাজার লেনদেনের পরিমাণ কমেছে। সেইসঙ্গে লেনদেন হওয়া বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার দাম কমেছে। ডিএসইতে লেনদেন হওয়া ১৪৭টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম আগের দিনের তুলনায় বেড়েছে। বিপরীতে দাম কমেছে ১৫২টির। আর দাম অপরিবর্তিত রয়েছে ৩৭টির।

দিনের লেনদেন শেষে ডিএসইর প্রধান মূল্যসূচক ডিএসইএক্স আগের দিনের তুলনায় ২ পয়েন্ট বেড়ে ৫ হাজার ৭৯৩ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। অপর দুটি মূল্যসূচকের মধ্যে ডিএসই-৩০ আগের দিনের তুলনায় ১ পয়েন্ট বেড়ে ২ হাজার ১৬৭ পয়েন্টে অবস্থা করছে। আর ডিএসই শরিয়াহ সূচক ২ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে ১ হাজার ৩৪৮ পয়েন্টে।

বাজারটিতে লেনদেন হয়েছে ৫৪৬ কোটি ৬৮ লাখ টাকা। আগের দিন লেনদেন হয় ৫৫৫ কোটি ২২ লাখ টাকা। সে হিসাবে আগের দিনের তুলনায় লেনদেন কমেছে ৮ কোটি ৫৪ লাখ টাকা।

টাকার অঙ্কে ডিএসইতে সব থেকে বেশি লেনদেন হয়েছে ব্র্যাক ব্যাংকের শেয়ার। প্রতিষ্ঠানটির ৪৯ কোটি ২৩ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। লেনদেনে দ্বিতীয় স্থানে থাকা ইফাদ অটোসের ৩২ কোটি ২ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। ১২ কোটি ৯৭ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেনে তৃতীয় স্থানে রয়েছে ইউনিক হোটেল।

লেনদেনে এরপর রয়েছে- বেক্সিমকো, আমরা নেটওয়ার্ক, ড্রাগন সোয়েটার, মুন্নু সিরামিক, রূপালী লাইফ ইন্স্যুরেন্স, জাহিন স্পিনিং এবং লংকাবাংলা ফাইন্যান্স।

অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের সার্বিক মূল্যসূচক সিএসসিএক্স ৩ পয়েন্ট বেড়ে ১০ হাজার ৭৮৪ পয়েন্টে অবস্থান করছে। বাজারটিতে লেনদেন হয়েছে ১৮ কোটি ১৫ লাখ টাকা। আগের দিন লেনদেন হয় ২৯ কোটি ৮৮ লাখ টাকা। বাজারটিতে লেনদেন হওয়া ২৩৪টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ৮৫টির দাম বেড়েছে। বিপরীতে দাম কমেছে ১২২টির। আর দাম অপরিবর্তিত রয়েছে ২৭টির।

এমএএস/জেডএ/এমএস

আপনার মতামত লিখুন :