শেয়ারবাজারে ফের বড় দরপতন

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৫:২৭ পিএম, ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

দুই কার্যদিবস কিছুটা ঊর্ধ্বমুখী থাকার পর আজ (সোমবার) দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) এবং অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) ফের বড় দরপতন হয়েছে। দুই বাজারেই সবকটি মূল্যসূচকের পতন হয়েছে।

সূচকের পাশাপাশি ডিএসইতে বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম কমেছে। বাজারটিতে লেনদেনে অংশ নেয়া ৬৮টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট দাম বাড়ার তালিকায় নাম লিখিয়েছে। বিপরীতে দাম কমেছে ২৪২টির। আর অপরিবর্তিত রয়েছে ৩৭টির দাম।

বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম কমায় ডিএসইর প্রধান মূল্য সূচক ডিএসইএক্স আগের দিনের তুলনায় ৫১ পয়েন্ট কমে ৫ হাজার ৭২৪ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। অপর দুটি মূল্যসূচকের মধ্যে ডিএসই শরিয়াহ্ সূচক আগের দিনের তুলনায় ১০ পয়েন্ট কমে ১ হাজার ৩০৪ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। আর ডিএসই-৩০ আগের দিনের তুলনায় ১৭ পয়েন্ট কমে ১ হাজার ৯৮৭ পয়েন্টে অবস্থান করছে।

দিনভর বাজারটিতে লেনদেন হয়েছে ৮৯১ কোটি ৬৭ লাখ টাকা। আগের কার্যদিবসে লেনদেন হয় ৭২৫ কোটি ৪৯ লাখ টাকা। সে হিসেবে আগের কার্যদিবসের তুলনায় লেনদেন বেড়েছে ১৬৬ কোটি ১৮ লাখ টাকা।

টাকার অঙ্কে এদিন ডিএসইতে সব থেকে বেশি লেনদেন হয়েছে ইউনাইটেড পাওয়ার জেনারেশনের শেয়ার। কোম্পানিটির ৫৩ কোটি ৭০ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। লেনদেনে দ্বিতীয় স্থানে থাকা ফরচুন সুজের ৪৯ কোটি ৭ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। ৪০ কোটি ২৫ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেনে তৃতীয় স্থানে রয়েছে বাংলাদেশ সাবমেরিন কেবলস।

লেনদেনে এরপর রয়েছে- পেনিনসুলা চিটাগাং, আলিফ ইন্ডাস্ট্রিজ, প্যারামাউন্ট টেক্সটাইল, স্কয়ার ফার্মাসিউটিক্যাল, গ্রামীণ ফোন, সুহৃদ ইন্ডাস্ট্রিজ এবং এমএল ডাইং।

অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের সার্বিক মূল্যসূচক সিএসসিএক্স ৭০ পয়েন্ট কমে ১০ হাজার ৬১৪ পয়েন্টে অবস্থান করছে। বাজারটিতে লেনদেন হয়েছে ৩৪ কোটি ৪৫ লাখ টাকা। লেনদেন হওয়া ২৬৯টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ৬৯টির দাম বেড়েছে। বিপরীতে দাম কমেছে ১৭৭টির। আর দাম অপরিবর্তিত রয়েছে ২৩টির।

এমএএস/জেএইচ/পিআর