ভোগাচ্ছে ডিম-মাছ-মুরগির দাম

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০১:২০ পিএম, ২২ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

সবজিতে ভরপুর রাজধানীর কাঁচাবাজার। উৎপাদনের সঙ্গে সরবরাহ পর্যাপ্ত থাকায় বাজারে মাত্র ১০ থেকে ২০ টাকায় মিলছে বেশির ভাগ সবজি।

তবে সাধারণ মানুষকে ভোগাচ্ছে ডিম-মাছ আর মুরগির দাম।

শুক্রবার সকালে রাজধানীর ভাসানটেক, ধামালকোট এবং কচুক্ষেত বাজার ঘুরে ব্যবসায়ী ও ক্রেতাদের সঙ্গে কথা বলে এমন তথ্য পাওয়া গেছে।

এ সময় বিক্রেতাদের মুখে হাসি থাকলেও ক্রেতাদের দেখা গেছে মলিন মুখে।

৯০ টাকা ডজনের ডিম এখন ১১০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। ব্রয়লার মুরগির কেজি কেনা যাচ্ছে ১৫০ থেকে ৬০ টাকা। পাকিস্তানি মুরগির কেজি ২৬০ থেকে ২৮০ টাকা।

বাজারগুলোতে গরুর ও খাসির মাংসের দাম অপরিবর্তিত রয়েছে। গরুর মাংস আগের মতোই ৫০০ টাকা কেজি, খাসির মাংস ৬৫০ থেকে ৮০০ টাকা কেজি।

মাছ ও মাংসের দাম চড়া হলেও শাক-সবজির বাজার নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। ভালো জাতের পেঁয়াজ ২০ টাকা এবং নতুন আলুর দাম ১৫ টাকা কেজিতে বিক্রি হচ্ছে।

bazar-4

গত কয়েক মাস ধরে বাজারে সব থেকে দামি সবজি তালিকায় রয়েছে ছোট আকৃতির উস্তা। এক কেজি উস্তা বিক্রি হচ্ছে ১২০ থেকে ১৪০ টাকায়। বাজার ও মানভেদে বড় করলার কেজি ৬০ থেকে ৭০ টাকায় পাওয়া যাচ্ছে।

কেজি ১৫ টাকায় পাওয়া যাচ্ছে বেগুন, শালগম, মুলা ও পেঁপে। বিচিবিহীন শিম বিক্রি হচ্ছে ২০ টাকা কেজি। ফুলকপি ১৫ থেকে ২০টাকা পিস এবং বাঁধাকপি ১৫ থেকে ২০ টাকা পিস বিক্রি হচ্ছে। সপ্তাহের ব্যবধানে এ সবজি দুটির দাম অপরিবর্তিত রয়েছে।

পালং শাক বিক্রি হচ্ছে ১০ টাকা আটি, লাল ও সবুজ শাকের দাম একই। লাউশাক পাওয়া যাচ্ছে ২০ থেকে ৩০ টাকায় আটি।

ভাসানটেক বাজারের সবজি ব্যবসায়ী খালেক জাগো নিউজকে বলেন, চাহিদা সরবরাহ দু-ই ভালো। যে কারণে সবজির দাম নাগালের মধ্যে।

আগামী দু-এক মাস সবজির বাজার এমনটিই থাকবে বলে মনে করছেন এই ব্যবসায়ী।

আরএম/জেডএ/এমকেএইচ

আপনার মতামত লিখুন :