পর্যটনশিল্পে জেলাভিত্তিক উন্নয়ন পরিকল্পনা

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৯:৫৮ পিএম, ২১ মার্চ ২০১৯

বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী মো. মাহবুব আলী বলেছেন, দেশ ও বিদেশের পর্যটকদের আকৃষ্ট করতে সরকার জেলাভিত্তিক পর্যটন উন্নয়নের পরিকল্পনা করছে।

আজ বৃহস্পতিবার রাজধানীর প্যান প্যাসিফিক সোনারগাঁও হোটেলে তিন দিনব্যাপী আন্তর্জাতিক পর্যটন মেলা উদ্বোধনকালে এ কথা বলেন তিনি।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ অপরূপ প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের দেশ। একই সঙ্গে রয়েছে আমাদের হাজার বছরের সমৃদ্ধ ঐতিহ্য, সংস্কৃতি, জীবনাচরণ এবং মহান মুক্তিযুদ্ধের গৌরবময় ইতিহাস। পর্যটনশিল্পের উন্নয়ন ও বিকাশের আমাদের প্রাকৃতিক সৌন্দর্য এবং ইতিহাস-ঐতিহ্যকে কাজে লাগাতে হবে। বাংলাদেশের ৬৪টি জেলার প্রতিটিতেই পর্যটন আকর্ষণীয় স্থান রয়েছে। এই স্থানগুলোর উন্নয়নের মাধ্যমে পর্যটনের উন্নয়ন সম্ভব।

তিনি বলেন, আমরা প্রতিটি জেলায় জেলাভিত্তিক পর্যটন সার্কিট গড়ে তোলার জন্য কাজ করছি। ইতোমধ্যেই সকল জেলার পর্যটন আকর্ষণের সচিত্র তথ্য সংগ্রহ করা হয়েছে। দেশের বিভিন্ন পর্যটন গন্তব্যে নির্বিঘ্নে যাতায়াত সুবিধা প্রদানের লক্ষ্যে লাস্ট মাইল কানেক্টিভিটি বা পর্যটন সহযোগী সড়ক প্রকল্প উন্নয়নের লক্ষ্যে আমরা কাজ করে চলেছি।

বাংলাদেশ, নেপাল, থাইল্যান্ড, ইন্দোনেশিয়া ও মালয়েশিয়ার ৪১টি ট্যুর ও ট্রাভেলস সংস্থার সাতটি প্যাভিলিয়ন ও ৭০টি স্টল মেলায় অংশগ্রহণ করছে। প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত মেলা চলবে।

পর্যটন-সংক্রান্ত প্রকাশনা সংস্থা বাংলাদেশ মনিটরের আয়োজনে ১৬তম বারের মতো আয়োজিত এই মেলায় অন্য অংশীদাররা হলো নভোএয়ার, বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স লিমিটেড, বাংলাদেশ ট্যুরিজম বোর্ড ও মিউচুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংক।

মেলার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ ট্যুরিজম বোর্ডের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ড. ভুবন চন্দ্র বিশ্বাস, নভোএয়ারের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এম মফিজুর রহমান, বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স লিমিটেডের মহাব্যবস্থাপক শাকিল মেরাজ এবং বাংলাদেশ মনিটরের প্রধান সম্পাদক রাকিব সিদ্দিকী।

আরএম/এসআর/জেআইএম