বিপ্রপার্টি ডটকম নিয়ে যা বললেন সিইও

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০২:৫৭ পিএম, ০৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯

‘ফ্ল্যাট ক্রয়ে ক্রেতা ও বিক্রেতার মধ্যস্থতাকারী হিসেবে কাজ করছে বিপ্রপার্টি ডটকম (www.bproperty.com)। মূলত অনলাইনের মাধ্যমে ক্রেতাদের সহজে মানসম্মত সেবা দিতে এ সেবাটি চলু করা হয় ২০১৭ সালের মার্চে। এ সেবা নিতে ক্রেতাদের ফ্ল্যাটের মোট মূল্যের ৩ শতাংশ সার্ভিস চার্জ দিতে হয়,’- বলছিলেন, বিপ্রপার্টি ডটকমের সিইও মার্ক নোসওয়ার্থি।

সোমবার রাজধানীর পল্টনে ইকোনমিক রিপোর্টার্স ফোরামের (ইআরএফ) কার্যালয়ে ‘আবাসন খাতে ডিজিটাল রূপান্তর ও সম্ভাবনা’ শীর্ষক নলেজ শেয়ারিং অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন তিনি। ইআরএফের সহ-সভাপতি সৈয়দ শাহনেওয়াজ করিমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন রইটার্সের ব্যুরো চিফ সিরাজুল ইসলাম কাদের, ইআরএফের সাবেক সাধারণ সম্পাদক বদিউল আলম প্রমুখ। অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন ইআরএফের সাধারণ সম্পাদক এস এম রাশেদুল ইসলাম।

অনুষ্ঠানে মার্ক নোসওয়ার্থি বলেন, বিপ্রপার্টি ডটকম মূলত একটি টেক কোম্পানি। যারা বাংলাদেশের রিয়েল এস্টেট সেক্টরে সেবা দিয়ে আসছে। বাংলাদেশে প্রপার্টি সংক্রান্ত কমপ্লিট স্যলুশনস বিপ্রপার্টি ডটকম-ই প্রদান করে আসছে। ই-কমার্স প্রপার্টি পোর্টাল হিসেবে, প্রতিষ্ঠানটি লাখ লাখ গ্রাহকদের কাছে রিয়েল এস্টেট সার্ভিসকে সহজবোধ্য ও সহজতর করে তুলছে। বিপ্রপার্টি ডটকম এমন একটি ওয়েবসাইট যার মাধ্যমে গ্রাহকরা ঘরে বসেই প্রপার্টি ক্রয়-বিক্রয় ও ভাড়ার মতো জটিল কাজগুলো সহজেই করতে পারেন।

তিনি আরও বলেন, একই সঙ্গে ক্রেতা-বিক্রেতা উপভপক্ষের সঙ্গেই সামনাসামনি কথা বলে তাদের বিশ্বাস অর্জনে জোর দেয় প্রতিষ্ঠানটি।

অনুষ্ঠানে জানানো হয়, ইমার্জিং মার্কেটস প্রপার্টি গ্রুপের (ইএমপিজি) অঙ্গসংস্থা বিপ্রপার্টি ডটকম ২০১৬ সালের মে মাসে বাংলাদেশে যাত্রা করে। বিপ্রপার্টি ডটকমে ২৫ হাজারেরও বেশি প্রপার্টির তথ্য দেয়া আছে। উঠতি মার্কেটগুলোর চাহিদা অনুযায়ী রিয়েল এস্টেট খাতে বিশ্বমানের সেবা দেয়ার ক্ষেত্রে এএমপিজি বরাবরই গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে আসছে। এ ছাড়া এশিয়া , মধ্যপ্রাচ্য ও উত্তর আফ্রিকার রিয়েল এস্টেট খাতেও ইএমপিজি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছে। ইএমপিজি’র সদর দফতর আরব আমিরাতে। বিপ্রপার্টির দফতর ঢাকার গুলশানে।

এমইউএইচ/জেডএ/এমকেএইচ