শেয়ারবাজারে ফের বড় দরপতন

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৩:৪৮ পিএম, ১৬ অক্টোবর ২০১৯

রাষ্ট্রায়ত্ত বিনিয়োগকারী প্রতিষ্ঠান ইনভেস্টমেন্ট কর্পোরেশন অব বাংলাদেশ (আইসিবি) বিনিয়োগের সংবাদে মঙ্গলবার দেশের শেয়ারবাজারে মূল্য সূচকের বড় উত্থান হলেও বুধবার ফের বড় দরপতন হয়েছে।

ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) এবং চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সবকটি মূল্য সূচকের বড় পতনের পাশাপাশি কমেছে লেনদেনের পরিমাণ। সেই সঙ্গে লেনদেন অংশ নেয়া সিংহভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম কমেছে।

এদিন ডিএসইর প্রধান মূল্য সূচক ডিএসইএক্স ৪০ পয়েন্ট কমে ৪ হাজার ৭৮১ পয়েন্টে নেমে গেছে। অথচ আইসিবির বিনিয়োগের সংবাদে বুধবার সূচকটি ১১০ পয়েন্ট বেড়েছিল। ফলে টানা ছয় কার্যদিবস দরপতনের পর ঊর্ধ্বমুখিতায় দেখা পায় শেয়ারবাজার।

কিন্তু বুধবার লেনদেনের শুরু থেকেই পতনের আভাস দিতে থাকে শেয়ারবাজার। লেনদেনের শেষ পর্যন্ত একের পর এক প্রতিষ্ঠানের দরপতন হওয়ায় প্রধান মূল্য সূচকসহ ডিএসই অপর দুই সূচকেরও পতন হয়।

অপর দুই সূচকের মধ্যে ডিএসই শরিয়াহ্ ৯ পয়েন্ট কমে এক হাজার ৯৯ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। আর ডিএসই-৩০ সূচক ১৮ পয়েন্ট কমে এক হাজার ৬৮৫ পয়েন্টে অবস্থান করছে।

মূল্য সূচকের বড় পতনের পাশাপাশি ডিএসইতে লেনদেনে অংশ নেয়া বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম কমেছে। বাজারে লেনদেনে অংশ নেয়া ৬৫টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম বেড়েছে। বিপরীতে কমেছে ২৫৯টির। আর ৩০টির দাম অপরিবর্তিত রয়েছে।

দিনভর ডিএসইতে লেনদেন হয়েছে ৩২৪ কোটি ৫৭ লাখ টাকা। আগের কার্যদিবসে লেনদেন হয় ৩২৮ কোটি ৫ লাখ টাকা। অর্থাৎ বাজারে তিন কোটি ৪৮ লাখ টাকা লেনদেন কমেছে।

টাকার অঙ্কে ডিএসইতে সব থেকে বেশি লেনদেন হয়েছে বাংলাদেশ শিপিং কর্পোরেশনের শেয়ার। কোম্পানিটির ২১ কোটি ৪১ লাখ টাকার লেনদেন হয়েছে। দ্বিতীয় স্থানে থাকা ন্যাশনাল টিউবসের ১৩ কোটি ৬০ লাখ টাকার লেনদেন হয়েছে। ১৩ কোটি টাকার লেনদেনে তৃতীয় স্থানে রয়েছে সামিট পাওয়ার।

এছাড়া লেনদেনের দিক থেকে শীর্ষ দশ প্রতিষ্ঠানের তালিকায় রয়েছে- গ্রামীণফোন, স্ট্যান্ডার্ড সিরামিক, ফরচুন সুজ, মুন্নু জুট স্টাফলার্স, স্কয়ার ফার্মাসিউটিক্যাল, প্যারামাউন্ট ইনস্যুরেন্স এবং মুন্নু সিরামিক।

অপরদিকে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের প্রধান মূল্য সূচক সিএএসপিআই ৯১ পয়েন্ট বেড়ে ১৪ হাজার ৫৫৫ পয়েন্টে অবস্থান করছে। বাজারে লেনদেন হয়েছে ১৫ কোটি ৫০ লাখ টাকা। লেনদেনে অংশ নেয়া ২৪৭ প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ৫৯টির দাম বেড়েছে। কমেছে ১৫৯টির। আর ২৯টির দাম অপরিবর্তিত রয়েছে।

এমএএস/এএইচ/এমএস