ন্যাশনাল টি’র লভ্যাংশ অপরিবর্তিত

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৮:৫১ পিএম, ২০ অক্টোবর ২০১৯

আগের হিসাব বছরের ধারাবাহিকতায় এবারও (২০১৮-১৯) পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত ন্যাশনাল টির পরিচালনা পর্ষদ শেয়ারহোল্ডারদের ২২ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। অর্থাৎ কোম্পানির শেয়ারহোল্ডাররা লভ্যাংশ হিসেবে প্রতিটি শেয়ারের বিপরীতে নগদ ২ টাকা ২০ পয়সা পাবেন।

রোববার (২০ অক্টোবর) অনুষ্ঠিত কোম্পানির পরিচালনা পর্ষদ সভায় ২০১৯ সালের ৩০ জুন সমাপ্ত বছরের আর্থিক প্রতিবেদন পর্যালোচনা করে এ লভ্যাংশ দেয়ার সিদ্ধান্ত হয়েছে।

লভ্যাংশের বিষয়ে কোম্পানির পরিচালনা পর্ষদের নেয়া সিদ্ধান্ত শেয়ারহোল্ডারদের অনুমোদনের জন্য বার্ষিক সাধারণ সভার (এজিএম) তারিখ নির্ধারণ করা হয়েছে ২৪ ডিসেম্বর। আর রেকর্ড ডেট নির্ধারণ করা হয়েছে ১৯ নভেম্বর।

লভ্যাংশ হিসেবে প্রতিটি শেয়ারের বিপরীতে মাত্র ২ টাকা ২০ পয়সা দিলেও ২০১৮-১৯ হিসাব বছরে মোটা অঙ্কের মুনাফা করেছে ন্যাশনাল টি। সমাপ্ত হিসাব বছরে কোম্পানিটি শেয়ারপ্রতি মুনাফা করেছে ২০ টাকা ২৪ পয়সা।

এ হিসাবে কোম্পানির মোট মুনাফা হয়েছে ১৩ কোটি ৩৫ লাখ ৮৪ হাজার টাকা। এরমধ্য থেকে শেয়ারহোল্ডারদের লভ্যাংশ হিসেবে দেয়া হবে মাত্র এক কোটি ৪৫ লাখ ২০ হাজার টাকা। অর্থাৎ শেয়ারহোল্ডারদের না দিয়ে মুনাফার প্রায় ৯০ শতাংশ রেখে দেবে কোম্পানিটির।

শেয়ারপ্রতি মাত্র ২ টাকা ২০ পয়সা লভ্যাংশ পেলেও কোম্পানিটির শেয়ার দাম অনেকটাই আকাশ চুম্বি। মাত্র ৬ কোটি ৬০ লাখ টাকা পরিশোধিত মূলধনের কোম্পানিটির প্রতিটি শেয়ার বর্তমান দাম ৬২৯ টাকা। অবশ্য সেপ্টেম্বরের শুরুতে কোম্পানিটির শেয়ার দাম সাড়ে সাতশ টাকার কাছাকাছি ছিল। কিন্তু গত একমাসের টানা পতনে এখন সাড়ে ছয়শ টাকার নিচে চলে এসেছে।

এদিকে লভ্যাংশ ঘোষণার কারণে সোমবার (২১ অক্টোবর) কোম্পানিটির শেয়ার দামের কোন সর্কিট ব্রেকার থাকবে না। অর্থাৎ কোম্পানিটির শেয়ার দাম যত খুশি বাড়তে অথবা কমতে পারবে।

এমএএস/এএইচ/জেআইএম