প্রাণ গ্রুপের মাধ্যমে আন্তর্জাতিক পুঁজিবাজারে টাকার অন্তর্ভুক্তি

জাগো নিউজ ডেস্ক
জাগো নিউজ ডেস্ক জাগো নিউজ ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৮:০৩ পিএম, ১১ নভেম্বর ২০১৯

বাংলাদেশের খাদ্যপণ্য ও পানীয় উৎপাদনকারী শীর্ষস্থানীয় কোম্পানি প্রাণ গ্রুপকে তাদের কার্যক্রম ও সরবরাহ বৃদ্ধির জন্য বাংলাদেশি টাকায় ৮০০ মিলিয়ন সমমূল্যের একটি বন্ড প্রদান করেছে বিশ্বব্যাংকের আর্থিক প্রতিষ্ঠান ইন্টারন্যাশনাল ফাইন্যান্স কর্পোরেশন (আইএফসি)।

আইএফসি এ নিয়ে তাদের ওয়েবসাইটে একটি সংবাদ বিজ্ঞপ্তি দিয়ে জানিয়েছে, শুধু খাদ্য ও পানীয় উৎপাদন নয়, বাংলাদেশে বেসরকারি খাতে সবচেয়ে বেশি কর্মসংস্থান সৃষ্টিকারী প্রাণ গ্রুপের এই বন্ড প্রাপ্তির মাধ্যমে প্রথমবারের মতো দেশটির মুদ্রায় (টাকা) আন্তর্জাতিক পুঁজিবাজারে লেনদেন হবে।

বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী, ‘বাংলা’ নামের বন্ডটি লন্ডন স্টক এক্সচেঞ্জে ইতোমধ্যে তালিকাভুক্ত হয়েছে। উদীয়মান বাজারে অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ যুক্তরাজ্যের স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড ব্যাংক এবং যুক্তরাষ্ট্রের ব্যাংক অব আমেরিকা মেরিল লিঞ্চের ব্যবস্থাপনায় তিন বছর মেয়াদি এ বন্ড পুঁজিবাজার থেকে মূলধন সংগ্রহ করবে।

আইএফসি জানিয়েছে, বন্ডটির মাধ্যমে আন্তর্জাতিক বাজার থেকে প্রাপ্ত অর্থ দ্বারা প্রাণ গ্রুপ যাতে গ্রামীণ পর্যায়ে তাদের প্রক্রিয়াজাতকরণের কাজ ও সরবরাহ বৃদ্ধি করতে পারে তার জন্যই এমন পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে। এদিকে পুঁজিবাজারে প্রাণ গ্রুপের অন্তর্ভুক্তিকে স্বাগত জানিয়েছে লন্ডন স্টক এক্সচেঞ্জ কর্তৃপক্ষ।

লন্ডন স্টক এক্সচেঞ্জের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) এবং লন্ডন স্টক এক্সচেঞ্জ গ্রুপের আন্তর্জাতিক উন্নয়ন পরিচালক নিখিল রাথি এ নিয়ে বলেন, ‘আইএফসির এই মাইলফলক বন্ড বৈশ্বিকভাবে বাংলা বন্ডের গোড়াপত্তন ঘটালো এবং আন্তর্জাতিক পুঁজিবাজারে বাংলাদেশি টাকার অবস্থান (প্রোফাইল) তৈরি করলো।’

kamal

লন্ডন স্টক মার্কেটে বাংলা টাকা বন্ডে লিস্টিং অনুষ্ঠানে অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল

তিনি বলেন, ‘স্থানীয় মুদ্রায় লেনদেন ইস্যুকরণে লন্ডন গোটা বিশ্বে নেতৃত্ব দিচ্ছে। আমাদের পুঁজিবাজারে মসলা, ডিম সুম এবং কমোডো বন্ডের পরিমাণ ২৩০ কোটিরও বেশি। আমরা লন্ডনে বাংলাদেশি টাকাকে স্বাগত জানাচ্ছি। একই সঙ্গে আইএফসিকে তাদের অগ্রণী ভূমিকার জন্য অভিনন্দন জানাই।’

আইএফসির এশিয়া ও প্যাসিফিক অঞ্চলের ভাইস প্রেসিডেন্ট নিনা স্টোইলজকোভিচ বলেন, ‘ট্রিপল এ-রেটেড আইএফসি ইস্যুকৃত বাংলা বন্ডের মাধ্যমে বৈশ্বিক বাজারে টাকার অন্তর্ভুক্তি দেশটির দ্রুত বর্ধনশীল কর্পোরেশন, কৃষি উৎপাদন ও আর্থিক সেবায় গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখবে। বৃহত্তর সমৃদ্ধি অর্জনে বাংলাদেশের এ অগ্রযাত্রার সক্রিয় অংশীদার হওয়ার অপেক্ষায় আছি আমরা।’

আইএফসির ভাইস প্রেসিডেন্ট ও ট্রেজারার (কোষাধ্যক্ষ) জন গাডলফো বলেন, ‘বাংলা বন্ড ইস্যুর এই ঘটনা পুঁজিবাজারের একটি উল্লেখযোগ্য উদ্ভাবন এবং বাংলাদেশের জন্য এটি একটি মাইলফলক। স্থানীয় মুদ্রাকে উদীয়মান বাজারে অন্তর্ভুক্তির ব্যাপারে আইএফসি প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। টাকার বন্ড ইস্যু করার মাধ্যমে আমরা বাংলাদেশে স্থানীয় মুদ্রার তহবিল তৈরির পরিকল্পনা করছি।’

আইএফসি তাদের বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছে, আন্তর্জাতিক পুঁজিবাজারে প্রথমবারের মতো টাকার অন্তর্ভুক্তির ঘটনাকে স্বাগত জানিয়েছেন দেশটির অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। তিনি বলেছেন, ‘বাংলা টাকায় বন্ড ইস্যুর মাধ্যমে আমাদের (বাংলাদেশের) কাঙ্ক্ষিত লক্ষ্যে পৌঁছানোর যাত্রা শুরু হলো।’

এসএ/এসএইচএস/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]