চতুর্থ দিনে এলো ২৮২ কোটি টাকা আয়কর

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৭:৪২ পিএম, ১৭ নভেম্বর ২০১৯

‘সবাই মিলে দেব কর, দেশ হবে স্বনির্ভর’ স্লোগান এবং ‘কর প্রদানে স্বতঃস্ফূর্ত অংশগ্রহণ, নিশ্চিত হোক রূপকল্প বাস্তবায়ন’ প্রতিপাদ্য সামনে রেখে চলমান সপ্তাহব্যাপী আয়কর মেলার চতুর্থ দিন ২৮২ কোটি টাকার ওপর রাজস্ব আদায় হয়েছে। মেলার আয়োজক জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) এ তথ্য জানিয়েছে।

এনবিআরের তথ্যানুযায়ী, মেলার চতুর্থ দিন রোববার (১৭ নভেম্বর) আয়কর সংগ্রহ হয়েছে ২৮২ কোটি ৫৭ লাখ ১০ হাজার ৫৭৯ টাকা। এ দিন মেলা প্রাঙ্গণ থেকে সেবা নিয়েছেন ২ লাখ ৯২ হাজার ৫২৫ জন। এর মধ্যে রিটার্ন দাখিল করেছেন ৯২ হাজার ৯১৬ জন। ৪ হাজার ৫৬২ জন নতুন ই-টিআইএন নিবন্ধন করেছেন।

এর মাধ্যমে মেলার প্রথম চারদিন আয়কর আদায় হয়েছে ১৩৪৬ কোটি ৮০ লাখ ২৫ হাজার ৫১২ টাকা। মেলা প্রাঙ্গণ থেকে এ চারদিনে সেবা নিয়েছেন ৯ লাখ ৬৮ হাজার ৯০৭ জন। এর মধ্যে রিটার্ন দাখিল করেছেন ৩ লাখ ১৪ হাজার ৫৬৫ জন। ১৬ হাজার ৫৪১ জন নতুন ই-টিআইন নিবন্ধন করেছেন।

মেলার তৃতীয় দিন শনিবার (১৬ নভেম্বর) আয়কর সংগ্রহ হয় ২৬২ কোটি ২ লাখ ৯২ হাজার ২৫১ টাকা। এ দিন মেলা প্রাঙ্গণ থেকে সেবা নেন ২ লাখ ৭১ হাজার ৯৪০ জন। এর মধ্যে রিটার্ন দাখিল করেন ৮৪ হাজার ৫৩৪ জন। ৪ হাজার ১১ জন নতুন ই-টিআইন নিবন্ধন করেন।

মেলার দ্বিতীয় দিন শুক্রবার আয়কর সংগ্রহ হয় ৪৭৯ কোটি ১ লাখ ২৮ হাজার ৭৯৭ টাকা। ওই দিন মেলা প্রাঙ্গণ থেকে সেবা নেন ২ লাখ ৬৮ হাজার ৬৮৪ জন। এর মধ্যে রিটার্ন দাখিল করেন ৭৩ হাজার ৭৪৩ জন। আর ৩ হাজার ৬০২ জন নতুন ই-টিআইএন নিবন্ধন করেন।

আর মেলার প্রথম দিন বৃহস্পতিবার আয়কর সংগ্রহ হয় ৩২৩ কোটি ১৮ লাখ ৯৩ হাজার ৮৮৫ টাকা। মেলা প্রাঙ্গণ থেকে সেবা নেন ১ লাখ ৩৫ হাজার ৭৫৮ জন। এর মধ্যে রিটার্ন দাখিল করেন ৬৩ হাজার ২৭২ জন। আর ৪ হাজার ৩৬৬ জন নতুন ই-টিআইএন নিবন্ধন করেন।

এ হিসাবে মেলার প্রথম তিন দিনের তুলনায় চতুর্থ দিন আয়কর মেলা থেকে সব থেকে বেশি মানুষ সেবা নিয়েছেন। সেই সঙ্গে বেড়েছে নতুন ই-টিআইএন নিবন্ধনের পরিমাণ।

এনবিআর বলছে, এবার মেলার পরিধি গতবছরের মেলার চেয়ে কয়েকগুণ বৃদ্ধি করা হয়েছে। মেলায় আয়কর রিটার্ন দাখিল, ই-টিআইন গ্রহণ, ই-পেমেন্ট, ই-ফাইলিং, ই-পেমেন্টের ব্যবস্থা রয়েছে। মেলার বিশেষ আকর্ষণ মোবাইল ব্যাংকিং সুবিধা গ্রহণ করে করদাতারা রকেট, নগদ, বিকাশ ও শিওর ক্যাশের মাধ্যমে আয়কর জমা দিতে পারছেন।

এমএএস/আরএস/জেআইএম