বাপা ফুডপ্রোর দ্বিতীয় দিন আজ

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০১:০৬ পিএম, ২২ নভেম্বর ২০১৯

রাজধানীর ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সিটি বসুন্ধরায় (আইসিসিবি) চলছে সপ্তম বাপা ফুডপ্রো ইন্টারন্যাশনাল এক্সপ্রো। তিন দিনব্যাপী এ মেলার আজ (২২ নভেম্বর) দ্বিতীয় দিন।

মেলায় দর্শনার্থী নিয়ে সন্তুষ্ট ওয়াইডওয়েজ ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড অটোমেশন লিমিটেডের প্রকৌশলী মো. জাহাঙ্গীর আলম। তিনি বলেন, ‘বৃহস্পতিবার দর্শনার্থী মোটামুটি ছিল। তবে শুক্রবার হওয়ায় বিকেলে দর্শনার্থী বেশি হবে বলে আশা করছি।’

আয়োজকরা জানান, বৃহস্পতিবার (২১ নভেম্বর) তিন দিনব্যাপী এ মেলা শুরু হয়েছে। প্রতিদিন বেলা ১১টা থেকে সন্ধ্যা ৭টা পর্যন্ত মেলা সবার জন্য উন্মুক্ত। মেলায় প্রায় ১৫ দেশের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান অংশ নিয়েছে।

বাংলাদেশ অ্যাগ্রো প্রসেসরস অ্যাসোসিয়েশন (বাপা) এবং রেইনবো এক্সিবিশন অ্যান্ড ইভেন্ট ম্যানেজমেন্ট সার্ভিসেস লিমিটেড এ মেলার আয়োজন করেছে। এ মেলার সঙ্গে ‘নবম এগ্রো বাংলাদেশ এক্সপো-২০১৯’ এবং ‘৬ষ্ঠ রাইস অ্যান্ড গ্রেইনটেক এক্সপো-২০১৯’ নামে আরও দুটি মেলা অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

তবে ইতোপূর্বে ছয়বার অনুষ্ঠিত এ মেলার সাফল্য, বিভিন্ন আন্তর্জাতিক এবং দেশি প্রতিষ্ঠানের অংশগ্রহণ ও দর্শনার্থীদের অভূতপূর্ব সাড়া পাওয়ায় এবারের মেলার সাফল্য নিয়েও আশাবাদী আয়োজকরা।

বাপার জন্মলগ্ন থেকেই ফুড প্রসেসিং সেক্টরের উন্নয়নের স্বার্থে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। বাপার মূল লক্ষ্যই হলো এই সেক্টরের ক্রমবর্ধমান বিকাশ নিশ্চিত করা এবং আন্তর্জাতিক পর্যায়ে তাল মিলিয়ে এগিয়ে যাওয়া। বিশ্বায়নের এই যুগে আগত প্রযুক্তির ব্যবহার নিশ্চিত করা ব্যতীত যে কোনো খাতে উন্নয়নের পথ রুদ্ধ। কজেই বাংলাদেশ যাতে কোনোভাবেই এ খাতে পিছিয়ে না যায়, সে ব্যাপারে বাপা সদা সচেষ্ট।

উল্লেখ্য, ১৩ সদস্য নিয়ে ১৯৯৮ সালে বাপার যাত্রা শুরু। বর্তমানে বাপার সদস্য সংখ্যা ৩০০। যারা প্রক্রিয়াজাত খাদ্য বিশ্বের ১৪৪ দেশে রফতানি করছে। বিগত অর্থবছরে খাদ্য রফতানির মাধ্যমে বাপার সদস্যরা ৩৭২ মিলিয়ন মার্কিন ডলার আয় করেছেন। এ রফতানির পরিমাণ ২০২১ সালের মাঝে এক বিলিয়ন ডলারে উন্নীত করতে বাপা বদ্ধপরিকর।

পিডি/এএইচ/পিআর

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]