দুই কোটি গাড়ি বিক্রির রেকর্ড মারুতি-সুজুকির

জাগো নিউজ ডেস্ক
জাগো নিউজ ডেস্ক জাগো নিউজ ডেস্ক
প্রকাশিত: ১০:৪২ এএম, ০২ ডিসেম্বর ২০১৯

সময়টা ১৯৮৩ সাল। ওই বছর মারুতি ৮০০ মডেলের গাড়ি নিয়ে ভারতের বাজারে আবির্ভূত হয় জাপানের গাড়ি নির্মাতা প্রতিষ্ঠান মারুতি-সুজুকি। ৩৬ বছরের ব্যবধানে রেকর্ড গড়ল প্রতিষ্ঠানটি। এ পর্যন্ত ভারতে দুই কোটি গাড়ি বিক্রি করেছে জাপানের এই প্রতিষ্ঠান।

ভারতে এক কোটি গাড়ি বিক্রি করতে তাদের সময় লেগেছিল ২৯ বছর। অথচ গত সাত বছরে তারা বিক্রি করেছে আরও এক কোটি গাড়ি। সবমিলিয়ে ৩৬ বছরে মারুতি-সুজুকির গাড়ি বিক্রির সংখ্যা পৌঁছে গেছে দুই কোটিতে। এই প্রথম দেশটিতে কোনো গাড়ি প্রস্তুতকারক সংস্থা এই রেকর্ড করল।

গাড়ি বিক্রির নতুন রেকর্ড প্রসঙ্গে মারুতি-সুজুকি ইন্ডিয়া লিমিটেডের ম্যানেজিং ডিরেক্টর এবং সিইও কেনিচি আয়ুকায়া বলেন, ‘আমরা অভিভূত। সংস্থার সমস্ত কর্মী, সাপ্লায়ার এবং আমাদের ডিলারদের কাছে এটা একটা বড় পাওনা।’ প্রতিষ্ঠানটির নির্মাণ করা গাড়ির ওপর আস্থা রাখার জন্য গ্রাহকদের ধন্যবাদ জানিয়েছেন আয়ুকায়া। তিনি বলেন, আগামী দিনে ভারতের প্রতিটি পরিবারের গাড়ির স্বপ্ন পূরণ করাই হবে তাদের লক্ষ্য। এ লক্ষ্যে কাজও শুরু করে দিয়েছে মারুতি-সুজুকি।

পেট্রল, ডিজেলচালিত গাড়ি হোক বা স্মার্ট হাইব্রিড বা সিএনজিচালিত গাড়ি-সব ক্ষেত্রেই গত কয়েক বছর ধরে ভারতের গাড়ি শিল্পে দাপিয়ে বেড়িয়েছে মারুতি-সুজুকি। শুধু তাই নয়, সরকারের দেয়া নির্ধারিত সময়ের আগেই বিএস৬ গাড়ি বাজারে এনেছে তারা।

১৯৮৩-তে মারুতি ৮০০ গাড়ি দিয়ে ভারতের বাজারে সফর শুরু করেছিল মারুতি-সুজুকি। বাজারে আসামাত্রই সকলের মন জয় করে নেয় মারুতি ৮০০। বাজারে আসার দুই বছরের কম সময়েই ১০ লাখ সেই গাড়ি বিক্রি করে প্রতিষ্ঠানটি। তার ঠিক ১০ বছর পরে ২০০৫-০৬ এর মধ্যে বিক্রির সংখ্যা পৌঁছায় ৫০ লাখে। পরবর্তী পাঁচ বছর অর্থাৎ ২০১১-১২ সালের মধ্যে আরও ৫০ লাখ গাড়ি বিক্রি হয়। দেশের বাজারে গাড়ির চাহিদা ও বিক্রির পরিসংখ্যান পর্যালোচনা করে উৎপাদন বৃদ্ধিতে জোর দেয় মারুতি। আর তাতেই মারুতি বাজিমাত করতে সক্ষম হয়েছে বলে মন করছেন অটোমোবাইল বিশেষজ্ঞরা।

এসআর/জেআইএম