পর্দা উঠল সিরামিক এক্সপোর

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০১:৪৩ পিএম, ০৫ ডিসেম্বর ২০১৯

রাজধানীর বসুন্ধরা আন্তর্জাতিক কনভেনশন সেন্টারে (আইসিসিবি) শুরু হয়েছে সিরামিক এক্সপো বাংলাদেশ-২০১৯। তিন দিনব্যাপী এই প্রদর্শনীর আয়োজন করছে বাংলাদেশ সিরামিক ম্যানুফ্যাকচারার্স অ্যান্ড এক্সপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশন (বিসিএমইএ)। এতে স্বাগতিক বাংলাদেশসহ ২০ দেশের ১৫০টি ব্র্যান্ড অংশ নিচ্ছে।

বৃহস্পতিবার (৫ ডিসেম্বর) এক্সপোর উদ্বোধন করেন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি। এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন- ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন এফবিসিসিআইয়ের প্রেসিডেন্ট শেখ ফজলে ফাহিম, বাংলাদেশ সিরামিক ম্যানুফ্যাকচারার্স অ্যান্ড এক্সপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি সিরাজুল ইসলাম মোল্লা, সাধারণ সম্পাদক ইফরান উদ্দিন প্রমুখ।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে জানানো হয়, তিন দিনব্যাপী এ প্রদর্শনী দর্শনার্থী ও ক্রেতা-বিক্রেতাসহ সকলের জন্য উন্মুক্ত থাকবে প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে সন্ধ্যা ৭টা পর্যন্ত। ওয়েম বাংলাদেশের সার্বিক ব্যবস্থাপনায় এক্সপোতে একই ছাদের নিচে থাকছে ২০টি দেশের মোট ১২০টি প্রতিষ্ঠান ও ১৫০টি ব্র্যান্ড। এছাড়া অংশ নিয়েছেন ৩০০ আন্তর্জাতিক প্রতিনিধি ও ৫০০ জন বায়ার্স হোস্ট। আগামী ৭ ডিসেম্বর রাজধানীর হোটেল র্যাডিসন ব্লুতে এ মেলার সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ বিষয়ক উপদেষ্টা সালমান ফজলুর (এফ) রহমান।

ceramic

অনুষ্ঠাননে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় টিপু মুনশি বলেন, উন্নত গুণগতমান ও আকর্ষণীয় ডিজাইনের কারণে বিশ্ববাজারে বাংলাদেশে তৈরি সিরামিক পণ্যের কদর বাড়ছে। একই সঙ্গে নতুন নতুন বাজারও সৃষ্টি হচ্ছে। এমনকি এই শিল্পে বড় উৎপাদনকারী দেশ চীন ও ভারতের নজরও এখন বাংলাদেশের দিকে। বিশ্বকে চমকে দিয়ে এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশের সিরামিক শিল্প। আমি আশা করি খুব শিগগিরই রফতানি পণ্যের তালিকায় সিরামিক শিল্প তৃতীয় বা চতুর্থ অবস্থান নিশ্চিত করতে পারবে।

বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, বিদেশের অনেক ফাইভ স্টার হোটেলে বাংলাদেশের সিরামিক পণ্য ব্যবহার হয়। এটা বাংলাদেশের জন্য গৌরবের। এ শিল্পকে এগিয়ে নিতে আরও সুবিধা প্রদানে বদ্ধপরিকর সরকার।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন এফবিসিসিআইয়ের প্রেসিডেন্ট শেখ ফজলে ফাহিম বলেন, ব্যাংক ঋণ সুদহার এবং অতিরিক্ত ট্যাক্সে দেশের ব্যবসা-বাণিজ্যকে সম্প্রসারিত হতে দিচ্ছে। আশা করি সরকার এ বিষয়গুলোতে নজর দেবে।

ceramic

বাংলাদেশ সিরামিক ম্যানুফ্যাকচারার্স অ্যান্ড এক্সপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি মো. সিরাজুল ইসলাম মোল্লা বলেন, গত দশ বছরে সিরামিক খাতে উৎপাদন বেড়েছে ২০০ শতাংশ। বিনিয়োগ বেড়েছে প্রায় ২০ শতাংশ। ৫০টিরও বেশি দেশে বছরে রফতানি আয় প্রায় পাঁচ কোটি ডলার।

তিনি বলেন, এ শিল্পে প্রায় সাড়ে ৮ হাজার কোটি টাকার বিনিয়োগ রয়েছে । প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে প্রায় পাঁচ লাখ মানুষ খাতটির সঙ্গে জড়িত। সিরামিক এক্সপোতে প্রস্তুতকারক, রফতানিকারক এবং সরবরাহকারীরা তাদের নতুন পণ্য, আধুনিক প্রযুক্তি এবং নিজেদের দক্ষতা বিশ্বব্যাপী তুলে ধরার সুযোগ পাচ্ছেন। এক্সপোর মাধ্যমে দেশীয় সিরামিক পণ্য বাজারজাতকরণের পাশাপাশি ব্যবহারে সচেতনতা বাড়ানো হবে। সেই সাথে থাকবে স্পট অর্ডারের সুযোগ।

এমইউএইচ/এনএফ/জেআইএম