সাড়ে চার হাজার কোটি টাকা মূলধন হারাল ডিএসই

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১২:৪৯ পিএম, ০৬ ডিসেম্বর ২০১৯

পতনের মধ্য দিয়ে আরও একটি সপ্তাহ পার করেছে দেশের শেয়ারবাজার। সপ্তাহের পাঁচ কার্যদিবসের মধ্যে চার কার্যদিবসেই কমেছে মূল্য সূচক। এতে পতন হয়েছে সবকটি মূল্য সূচকের। সেই সঙ্গে কমেছে লেনদেনের পরিমাণ। এই পতনের বাজারে প্রায় সাড়ে চার হাজার কোটি টাকা বাজার মূলধন হারিয়েছে প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই)।

বড় অংকের বাজার মূলধন হারানোর পাশাপাশি সপ্তাহজুড়ে ডিএসইতে লেনদেনে অংশ নেয়া বেশিসংখ্যক কোম্পানির শেয়ারের দাম কমেছে। সপ্তাহজুড়ে ডিএসইতে লেনদেনে অংশ নেয়া ১৪০টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম বেড়েছে। বিপরীতে দাম কমেছে ১৯৪টির। আর ২১টির দাম অপরিবর্তিত রয়েছে।

বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম কমায় সপ্তাহের শেষ কার্যদিবস শেষে ডিএসইর বাজার মূলধন দাঁড়িয়েছে তিন লাখ ৫২ হাজার ৩৭৪ কোটি টাকা। যা তার আগের সপ্তাহের শেষ কার্যদিবসে ছিল তিন লাখ ৫৬ হাজার ৭০৩ কোটি টাকা। অর্থাৎ এক সপ্তাহে ডিএসইর বাজার মূলধন কমেছে চার হাজার ৩২৯ কোটি টাকা।

এদিকে ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স কমেছে ৬০ দশমিক ১০ পয়েন্ট বা ১ দশমিক ২৭ শতাংশ। আগের সপ্তাহে এ সূচকটি বাড়ে ২৪ দশমিক ৭৭ পয়েন্ট বা দশমিক ৫৩ শতাংশ।

প্রধান মূল্য সূচকের পাশাপাশি কমেছে অপর দুটি সূচক। এর মধ্যে ডিএসই শরিয়াহ্ সূচক কমেছে ২৬ দশমিক ৩২ পয়েন্ট বা ২ দশমিক ৪৩ শতাংশ। আগের সপ্তাহে এ সূচকটি বাড়ে দশমিক ৩৯ পয়েন্ট বা দশমিক শূন্য ৪ শতাংশ।

আর ডিএসই-৩০ আগের সপ্তাহের তুলনায় কমেছে ৪১ দশমিক ৮৯ পয়েন্ট বা ২ দশমিক ৫৪ শতাংশ। আগের সপ্তাহে এ সূচকটি কমে ২ দশমিক ৯২ পয়েন্ট বা দশমিক ১৮ শতাংশ।

এদিকে ডিএসইতে লেনদেনের গতিও কিছুটা কমেছে। তবে দৈনিক গড় লেনদেনের পরিমাণ সাড়ে চারশ কোটি টাকার ওপরে রয়েছে। গত সপ্তাহের প্রতি কার্যদিবসে ডিএসইতে গড়ে লেনদেন হয়েছে ৪৬২ কোটি ১৯ লাখ টাকা। আগের সপ্তাহে প্রতিদিন গড়ে লেনদেন হয় ৪৭৫ কোটি ২১ লাখ টাকা। অর্থাৎ প্রতি কার্যদিবসে গড় লেনদেন কমেছে ১৩ কোটি ২ লাখ টাকা বা ২ দশমিক ৭৪ শতাংশ।

আর গত সপ্তাহজুড়ে ডিএসইতে মোট লেনদেন হয়েছে দুই হাজার ৩১০ কোটি ৯৮ লাখ টাকা। আগের সপ্তাহে লেনদেন হয় দুই হাজার ৩৭৬ কোটি ৬ লাখ টাকা। সে হিসাবে মোট লেনদেন কমেছে ৬৫ কোটি ৮ লাখ টাকা বা ২ দশমিক ৭৪ শতাংশ।

গত সপ্তাহের মোট লেনদেনের মধ্যে ‘এ’ গ্রুপের প্রতিষ্ঠানের অবদান দাঁড়িয়েছে ৮১ দশমিক ৩৭ শতাংশ। ‘বি’ গ্রুপের অবদান ১২ দশমিক শূন্য ৮ শতাংশ। ‘জেড’ গ্রুপের প্রতিষ্ঠানের অবদান ১ দশমিক ৬৪ শতাংশ এবং ‘এন’ গ্রুপের অবদান ৪ দশমিক ৯০ শতাংশ।

গত সপ্তাহজুড়ে ডিএসইতে টাকার অংকে সবচেয়ে বেশি লেনদেন হয়েছে লাফার্জহোলসিম বাংলাদেশের শেয়ার। কোম্পানিটির ৭৫ কোটি ১৯ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। যা সপ্তাহজুড়ে হওয়া মোট লেনদেনের ৩ দশমিক ২৫ শতাংশ। দ্বিতীয় স্থানে থাকা সোনার বাংলা ইন্স্যুরেন্সের শেয়ার লেনদেন হয়েছে ৫৯ কোটি ৫২ লাখ টাকার, যা সপ্তাহের মোট লেনদেনের ২ দশমিক ৫৮ শতাংশ। ৫০ কোটি ৭২ টাকার শেয়ার লেনদেনের মাধ্যমে তৃতীয় স্থানে রয়েছে প্যারামাউন্ট ইন্স্যুরেন্স।

লেনদেনে এরপর রয়েছে ফরচুন সুজ, এসকে ট্রিমস, ইউনাইটেড ফাইন্যান্স, ডাচ-বাংলা ব্যাংক, সিনোবাংলা ইন্ডাস্ট্রিজ, প্রিমিয়ার ব্যাংক এবং লংকাবাংলা ফাইন্যান্স।

এমএএস/এসআর/এমএস