সব নেটওয়ার্কেই হবে পস লেনদেন

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১২:০২ পিএম, ১০ ডিসেম্বর ২০১৯

পয়েন্ট অব সেলস বা পসভিত্তিক আন্তঃব্যাংক লেনদেনে সব নেটওয়ার্ক ব্যবহার করা যাবে। এর আগে এক নির্দেশনায় চলতি বছরের ৩১ ডিসেম্বরের মধ্যে আন্তঃব্যাংক পসের সব লেনদেন এনপিএসবি নেটওয়ার্কের আওতায় করার বাধ্যবাধকতা দেয়া হয়েছিল।

বাংলাদেশ ব্যাংকের পেমেন্ট সিস্টেমস বিভাগ সোমবার এক সার্কুলারে আগের সেই নির্দেশনা শিথিল করেছে। এর ফলে পস লেনদেনে এনপিএসবির পাশাপাশি নিজস্ব নেটওয়ার্ক ব্যবহার করা যাবে।

সংশ্লিষ্টরা জানায়, বর্তমানে ব্যাংকগুলো কেন্দ্রীয় ব্যাংকে স্থাপিত ন্যাশনাল পেমেন্ট সুইস বাংলাদেশ বা এনপিএসবি নেটওয়ার্কের পাশাপাশি ভিসা, মাস্টারকার্ডসহ বিভিন্ন আন্তর্জাতিক কার্ডের নেটওয়ার্ক ব্যবহার করে। এর ফলে অনেক বৈদেশিক মুদ্রা বিদেশ চলে যায়। এ রকম অবস্থায় ২০১৭ সালে এক নির্দেশনার মাধ্যমে আন্তঃব্যাংক পস লেনদেনে এনপিএসবি নেটওয়ার্ক ব্যবহারে বাধ্যবাধকতা করে নির্দেশনা দেয়া হয়।

কিন্তু ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহীদের কাছে পাঠানো নতুন সার্কুলারে ২০১৭ সালের ২৪ আগস্ট জারি করা এ-সংক্রান্ত সার্কুলারের ২(২)-এর ১ ধারায় সংশোধনী আনা হয়েছে।

এতে বলা হয়েছে, বাংলাদেশে কার্যরত এনপিএসবির সব সদস্য ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান তাদের পয়েন্ট অব সেলভিত্তিক স্থানীয় লেনদেন নিজস্ব নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিশ্চিত করে এনপিএসবির পাশাপাশি অন্যান্য নেটওয়ার্ক ব্যবহার করতে পারবে। পরবর্তী আদেশ না দেয়া পর্যন্ত এ নির্দেশনা বহাল থাকবে।

আগের নির্দেশনায় বলা হয়েছিল, এনপিএসবির সব সদস্য ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানের সব পস এনপিএসবিতে সংযুক্ত করতে হবে। এছাড়া পসের মাধ্যমে সম্পাদিত আন্তঃব্যাংক কার্ডের সব লেনদেন এনপিএসবির মাধ্যমে করতে হবে।

বাংলাদেশ ব্যাংকের তথ্য অনুযায়ী, বর্তমানে ব্যাংকগুলোর পস টার্মিনাল রয়েছে প্রায় ৫৩ হাজার। এনপিএসবি নেটওয়ার্কে সংযুক্ত রয়েছে ৫০টি ব্যাংক। সব মিলিয়ে ব্যাংকগুলোর এক কোটি ৭৫ লাখের মতো কার্ড রয়েছে। এসব কার্ডের মাধ্যমে গ্রাহকরা পস টার্মিনাল ব্যবহার করে কেনাকাটার বিল পরিশোধ করতে পারেন।

এসআই/বিএ/পিআর