বাণিজ্য মেলায় হাতের নাগালে ব্যাংকিংসেবা

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৬:৫৩ পিএম, ১৫ জানুয়ারি ২০২০

ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলায় ক্রেতা-বিক্রেতা ও দর্শনার্থীদের সেবা দিচ্ছে সরকারি-বেসরকারি পাঁচটি বাণিজ্যিক ব্যাংক। মেলায় সহজ ও নিরাপদে আর্থিক লেনদেনের পাশাপাশি দেয়া হচ্ছে এটিএম বুথ ও মোবাইল ব্যাংকিং সুবিধা।

একই সঙ্গে ব্যাংক হিসাবও খুলতে পারছেন ক্রেতা-দর্শনার্থীরা। মেলার স্টলমালিকদের জন্য রয়েছে বিশেষ ব্যবস্থা। সারা দিনের বেচা-কেনার অর্থ সহজেই জমা দেয়ার সুযোগ রয়েছে। মেলায় এ ধরনে সুবিধা দিচ্ছে ইসলামী ব্যাংক, ডাচ-বাংলা, ফাস্ট সিকিউরিটি ইসলামী ব্যাংক, রাষ্ট্রায়ত্ত জনতা ও সোনালী ব্যাংক।

Bank-3

মেলায় অংশগ্রহণ করা ব্যাংকগুলোর কর্মকর্তারা জানান, ক্রেতা-দশনার্থীদের লেনদেনের সুবিধার্থে ব্যাংকিংসেবা দেয়া হচ্ছে। কেনাকাটা করতে চাহিদা মতো টাকা তোলা ও বিক্রেতাদের নগদ টাকা জমার সুবিধা রয়েছে প্রতিদিন সকাল থেকে রাত পর্যন্ত। এসব শাখায় পণ্যের ভ্যাট পরিশোধ, এক ব্যাংক থেকে অন্য ব্যাংকে টাকা পাঠানোর মতো সেবাও পাওয়া যাচ্ছে। পাশাপাশি এটিএম বুথের মাধ্যমে নগদ টাকাও তুলতে পারছেন মেলায় আসা ক্রেতা-দর্শনার্থীরা।

একই সঙ্গে গ্রাহকের নতুন হিসাব খোলা, বিভিন্ন আমানত ও ঋণ প্রকল্প সম্পর্কেও তথ্য জানানো হচ্ছে মেলায় আগত উৎসাহী দর্শনার্থীদের। এছাড়া নিজেদের নতুন পণ্যের সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দিচ্ছে ব্যাংকগুলো। মেলায় বিভিন্ন ব্যাংকিংসেবার মধ্যে এটিএম বুথ ও মোবাইল ব্যাংকিংয়ের প্রতি দর্শনার্থীদের আগ্রহ বেশি।

মেলায় অংশ নেয়া ফাস্ট সিকিউরিটি ইসলামী ব্যাংকের প্রিন্সিপাল অফিসার ও প্যাভিলিয়ন ইনচার্জ মো. বেলাল হোসেন জাগো নিউজকে বলেন, এবারই প্রথম মেলায় অংশ নিয়েছি। এরই মধ্যে গ্রাহকদের ভালো সাড়া পাচ্ছেন তারা।

Bank-4

মেলার গ্রাহকদের ব্যাংক হিসাব খোলার পাশাপাশি আমানতের বিভিন্ন অফার সম্পর্কে জানানো হচ্ছে। এছাড়া তাৎক্ষণিক লেনদেনের সুবিধার্থে এটিএম বুথ ও এজেন্ট ব্যাংকিংয়ের সুবিধা দেয়া হচ্ছে। মেলায় মোবাইল অ্যাপ্লিকেশন এফএসআইবিএল ক্লাউডের সেবা সম্পর্কে জানানো হচ্ছে। এ সেবার মাধ্যমে গ্রাহক ফান্ড ট্রান্সফার, বিল পেমেন্ট, মোবাইল রিচার্জসহ ব্যাংকের সব ধরনের আমানত ও বিনিয়োগের তথ্য জানতে করতে পারবেন। মেলার শুরু থেকেই গ্রাহকদের বেশ সাড়া পাওয়া যাচ্ছে বলে জানান বেলাল হোসেন।

মেলায় নান্দনিক প্যাভিলিয়ন তৈরি করেছে ইসলামী ব্যাংক। মূল ফটক দিয়ে প্রবেশ করলেই হাতের বাম পাশে চোখে পড়বে ব্যাংকটির এ প্রিমিয়ার প্যাভিলিয়ন। যেখানে দেশের উন্নয়ন অগ্রগতির প্রতিচ্ছবি ফুটিয়ে তোলা হয়েছে। যেখানে দেশের শিল্পায়ন, গার্মেন্টস, পল্লী উন্নয়ন, আবাসন, পরিবহন, কৃষি ও কৃষিভিত্তিক শিল্পে বিনিয়োগ কার্যক্রমের চিত্র ফুটে উঠেছে।

Bank-5

বাণিজ্য মেলায় প্রতিষ্ঠানটির দায়িত্বরত কর্মকর্তা জানান, মেলায় প্যাভিলিয়নটিতে ব্যাংকের শাখা, উপশাখা ও এজেন্ট ব্যাংকিং আউটলেটের মাধ্যমে বৈদেশিক বাণিজ্য, প্রযুক্তিসমৃদ্ধ ব্যাংকিং সেবা, চিকিৎসা, শিক্ষা এবং সিএসআর কার্যক্রমের তথ্য সেবাসহ সিআরএম ও এটিএমের মাধ্যমে টাকা জমা ও উত্তোলনের সুবিধা রয়েছে। এছাড়া আমানত ও ঋণ প্রকল্প সম্পর্কে দশনার্থীদের বিভিন্ন তথ্য জানানো হচ্ছে।

মেলায় আসা বেসরকারি চাকরিজীবী আব্দুল্লাহ বলেন, আগারগাঁও এসেছিলাম একটা কাজে। তাই মেলায় ঘুরতে এলাম। কিছু পণ্য পছন্দ হয়েছে কিনতে নগদ টাকার প্রয়োজন। ডাচ-বাংলা ব্যাংকের বুথ থেকে টাকা তুললাম। মেলায় এটিএম বুথ থাকায় ভালো হয়েছে সহজে টাকা উত্তোলন করতে পারলাম। ভালোই লাগছে।

Bank-5

মেলায় জনতা ব্যাংকের কর্মকর্তা এসএম হাসানুজ্জামান জানান, গতবারের মতো এবারও আমরা মেলায় অংশ নিয়েছি। এখানে টাকা জমা ও উত্তোলনসহ বিভিন্ন ব্যাংকিং সেবা দেয়া হচ্ছে। এছাড়া এটিএম- এর সেবা রয়েছে। যত দিন যাচ্ছে মেলায় ক্রেতা-দর্শনার্থীর সংখ্যা বাড়ছে। ভালো সাড়া পাওয়া যাচ্ছে।

এসআই/এমএসএইচ/পিআর