বাণিজ্য মেলায় আসছে দর্শনার্থী, বিকেলে ভিড় বাড়ার প্রত্যাশা

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০২:১১ পিএম, ১৮ জানুয়ারি ২০২০

দেখতে দেখতে ১৮তম দিন অতিক্রম হতে চলেছে ২৫তম ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলা। শুরুর দিকে দর্শনার্থী খরা ছিল। এ অবস্থা ধীরে ধীরে কাটিয়ে উঠছে।

আজ সরকারি ছুটির দিন ও আবহাওয়া চমৎকার হলেও প্রত্যাশার তুলনায় দর্শনার্থীর সংখ্যা কম বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা। তবে সকাল থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত যে পরিমাণ ক্রেতা-দর্শনার্থী এসেছে সেটাকে কমও বলছেন না তারা। বিকেল হতে হতে ক্রেতা-দর্শনার্থীর উপচে পড়া ভিড় হবে এমনটাই আশা মেলার ইজারাদার ও অংশগ্রহণ করা প্রতিষ্ঠানগুলোর।

সকাল থেকে ক্রেতা-দর্শনার্থীর উপস্থিতির বিষয়ে জানতে চাইলে গেট ইজারা পাওয়া মীর ব্রাদার্সের পরিচালক মীর মানসুর আলম জাগো নিউজকে বলেন, সকাল থেকে যে পরিমাণ দর্শনার্থী এসেছে সেটা খুব বেশি না, আবার খুব কমও না। তবে বিকেল হতে হতে দর্শনার্থী বাড়বে বলে আশা প্রকাশ করেন তিনি।

তিনি আরও বলেন, মেলা শুরুর দিকে দর্শনার্থী কম থাকলেও এখন দর্শনার্থী বেশ ভালো। গতকাল সাপ্তাহিক ছুটির দিন হওয়ায় গতকাল প্রচুর দর্শনার্থী এসেছিল। আজকেও তারই ধারাবাহিকতা বজায় থাকবে বলে আশা করি।

mela-2

এদিকে মেলা প্রাঙ্গণ ঘুরে বেশ কিছু স্টলে দর্শনার্থীর সংখ্যা দেখা গেলেও অনেক স্টল ছিল দর্শনার্থী শূন্য। বিশেষ করে মেলার মূল গেট দিয়ে ঢুকে বাম দিকের হোম টেক্সটাইল ও ব্লেজারের স্টলে দর্শনার্থী কম লক্ষ্য করা গেছে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে ক্লাসিক্যাল হোম টেক্সটাইল লিমিটেডের বিক্রয় প্রতিনিধি এহেশান আলম বলেন, গতকাল তাদের বেচা-কেনা বেশ ভালো ছিল। তবে আজকে সকাল থেকে দর্শনার্থীর সংখ্যা একটু কম। আশা করছি, বিকেলে দর্শনার্থী বাড়বে।

বরাবরের মতো এবারও বছরের প্রথম দিন (১ জানুয়ারি) শুধু হয়েছে ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলা। মাসব্যাপী বাণিজ্য মেলা উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

এবারের মেলায় বাংলাদেশের পাশাপাশি থাইল্যান্ড, ইরান, তুরস্ক, নেপাল, চীন, মালয়েশিয়া, যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, ভারত, পাকিস্তান, হংকং, দক্ষিণ কোরিয়া, দক্ষিণ আফ্রিকা, জার্মানি, অস্ট্রেলিয়া, ভুটান, ব্রুনাই, দুবাই, ইতালি ও তাইওয়ানের প্রতিষ্ঠান অংশ নিয়েছে বলে জানিয়েছে মেলার আয়োজক রফতানি উন্নয়ন ব্যুরো।

মেলায় ক্রেতারা যেসব পণ্য কিনতে পারবেন তার মধ্যে অন্যতম হলো দেশীয় বস্ত্র, মেশিনারিজ, কার্পেট, কসমেটিক্স অ্যান্ড বিউটি এইডস, ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিক্স, পাট ও পাটজাত পণ্য সামগ্রী, চামড়া/আর্টিফিসিয়াল চামড়া ও জুতাসহ চামড়াজাত পণ্য, স্পোর্টস গুডস, স্যানিটারি ওয়্যার, খেলনা, স্টেশনারি, ক্রোকারিজ, প্লাস্টিক সামগ্রী, মেলামাইন সামগ্রী, হারবাল ও টয়লেট্রিজ, ঘড়ি, হোম অ্যাপ্লায়েন্স, ইমিটেশন জুয়েলারি, সিরামিকস, টেবিল ওয়্যার, ক্যাবল, প্রক্রিয়াজাত খাদ্য, ফাস্টফুড, আসবাবপত্র ও হস্তশিল্পজাত পণ্য, উপহার সামগ্রী, কনস্ট্রাকশন সামগ্রী, হোম ডেকর, বেকারি পণ্য, বিদেশি বস্ত্র ইত্যাদি।

এমইউএইচ/জেএইচ/এমকেএইচ