ক্রেতাশূন্য মেলায় শিক্ষার্থীদের ভিড়

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০২:৩৭ পিএম, ২০ জানুয়ারি ২০২০

মাসব্যাপী ২৫তম ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলার ১৯তম দিনে ক্রেতা-দর্শনার্থীর খরা কাটছে না। তবে আজ রাজধানীর বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের ভিড় লক্ষ্য করা গেছে।

রাজধানীর আগারগাঁওয়ে চলছে বাণিজ্য মেলা। আজ সোমবার (২০ জানুয়ারি) সরেজমিন বাণিজ্য মেলা ঘুরে দেখা যায়, সকাল ১০টা বাজার পরপর মেলার ফটক খোলার পর আগারগাঁওসহ পার্শবর্তী বিভিন্ন এলাকার শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা প্রবেশ করতে শুরু করেন। সহপাঠী ও বন্ধবান্ধব নিয়ে তারা মেলায় বেড়াতে আসেন। মেলায় এসে বিভিন্ন স্টল ঘুরে দেখেন, আবার কেউ কেউ মেলার মধ্যে বিভিন্ন খাবারের দোকানে ঢুঁ মারেন। অনেককে আবার বন্ধু-বান্ধব মিলে ছবি তোলা, আড্ডায় ব্যস্ত থাকতে দেখা যায়।

jagonews24

মিরপুরের বাঙলা কলেজ থেকে বান্ধবীদের নিয়ে ঘুরতে এসেছেন একাদশ শ্রেণির ছাত্রী ইসরাত। তিনি বলেন, ‘আমাদের পরীক্ষা শেষ। তাই সময় করে ঘুরতে এলাম।’ তিনি বলেন, মেলা উপলক্ষে জায়গাটা খুব সুন্দর করে সাজানো হয়েছে। এটা দেখে আমার খুব ভালো লেগেছে।

৬ শিক্ষকের নেতৃত্বে ক্যামব্রিয়ান স্কুল অ্যান্ড কলেজের ২০০ শিক্ষার্থীর একটি বিশাল দল এসেছে মেলায় ঘুরতে। তাদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, মেলায় আসার জন্য কলেজ কর্তৃপক্ষ আজ তাদের ছুটি দিয়েছেন। যেহেতু ক্লাস পরীক্ষা নেয়, তাই তারা ঘুরতে এসেছেন মেলায়।’

jagonews24

এবার শুরু থেকেই বাণিজ্য মেলায় ক্রেতাদের খরা যাচ্ছে। সকাল থেকে রাত পর্যন্ত দেশি-বিদেশি স্টলগুলো ক্রেতাদের অপেক্ষায় থাকলেও আশানুরূপ বিক্রি হচ্ছে না। দোকান খুলে অনেকে অলস সময় পার করছেন।

পাকিস্তানি প্যাভিলিয়নে রেডিমেট পোশাকের স্টল দিয়েছেন পাকিস্তানি আহম্মেদ। স্টলে বসে তাকে অলস সময় পার করতে দেখা যায়। তিনি জাগো নিউজকে বলেন, এবার আশানুরূপ বিক্রি হচ্ছে না। তবে তার প্রতিষ্ঠানের প্রচারণার হচ্ছে ভেবে হতাশ নন বলে জানান তিনি।

jagonews24

আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলায় ক্রেতাদের খরা দেখা গেলেও প্রাণের বিভিন্ন স্টলে উপচেপড়া ভিড় দেখা গেছে। ক্রেতারা বিভিন্ন ধরনের খাদ্যপণ্য কিনতে ভিড় করছেন সেখানে।

আয়োজক কর্তৃপক্ষ জানান, প্রতি বছরের মতো এবারও আগারগাঁওয়ে বছরের প্রথম দিন থেকে শুরু হয়েছে ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলা। ১ জানুয়ারি (বুধবার) শুরু হওয়া এবারের মেলায় দর্শনার্থীদের প্রবেশ মূল্য কিছুটা বাড়ানো হয়েছে। মেলায় প্রবেশে প্রাপ্ত বয়স্কদের টিকিটের মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে ৪০ টাকা, যা গত বছর ছিল ৩০ টাকা। তবে অপ্রাপ্ত বয়স্কদের টিকিটের মূল্য আগের মতোই ২০ টাকা রাখা হয়েছে।
ইস্কাটন থেকে মেলায় এসেছেন মো. রিয়াদ। তিনি বলেন, এবার মেলায় প্রবেশের মূল্য বাড়ানো হয়েছে কিন্তু মেলার গুণগত মানের কোনো উন্নয়ন হয়নি। অনেক স্টল লোভনীয় অফারের নামে নিম্নমানের পণ্য বিক্রি করছে। এসব পণ্য কিনে অনেকে প্রতারিত হচ্ছেন।

তিনি আরও বলেন, মেলার আয়োজকদের উচিত এসব কার্যক্রম দমন করা। নয়তো বাণিজ্য মেলায় আসতে অনেকে আগ্রহ হারিয়ে ফেলবে।

jagonews24

মিরপুর ২ নম্বর থেকে এসেছেন মিজানুর রহমান। তিনি বলেন, ‘আমি কয়েক বছর ধরেই মেলার প্রথম দিকে আসি। এবার দর্শনার্থীর সংখ্যা যত কম দেখছি, এর আগে মেলার এত কম দর্শনার্থী দেখিনি।’

তিনি বলেন, ‘মেট্রোরেলের কাজ চলায় মিরপুর থেকে মেলায় আসতে বড় ধরনের যানজটে পড়তে হয়। এটাও মেলায় দর্শনার্থী কম হওয়ার একটি কারণ হতে পারে। তবে আমার মনে হয়, এবার টিকিটের দাম বাড়ানো মেলায় দর্শনার্থী কম হওয়ার অন্যতম কারণ।’

এমএইচএম/এসআর/এমকেএইচ