বেভারেজে থাই উদ্যোক্তাদের বিনিয়োগের আহ্বান শিল্পমন্ত্রীর

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১২:৫৫ পিএম, ২৫ জানুয়ারি ২০২০

বাংলাদেশের খাদ্য ও বেভারেজ শিল্পখাতে বিনিয়োগের বিশাল সম্ভাবনা রয়েছে উল্লেখ করে শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ূন সম্ভাবনাময় এ শিল্পখাতে থাইল্যান্ডের ঐতিহ্যবাহী বেভারেজ শিল্প প্রতিষ্ঠান থাইবেভ -এর প্রতি যৌথ বিনিয়োগে এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়েছেন।

থাইল্যান্ড সফররত শিল্পমন্ত্রী শুক্রবার থাইবেভ পরিদর্শনকালে প্রতিষ্ঠানটির ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সঙ্গে আয়োজিত বৈঠকে এ আহ্বান জানান।

বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন থাইবেভের ব্যবস্থাপনা পরিচালক থামনি রাচাকটরা, ভাইস প্রেসিডেন্ট উইচিট চিন্দাসমবেচারণ, স্যুটেক ইঞ্জিনিয়ারিং কোম্পানি লিমিটেডের চেয়ারম্যান ড. তেরাপল প্রুকসেথারন, প্রেসিডেন্ট ড. পিট প্রুকসেথরন, বাংলাদেশ চিনি ও খাদ্য শিল্প কর্পোরেশনের (বিএসএফআইসি) চেয়ারম্যান অজিত কুমার পাল এফসিএ, শিল্প মন্ত্রণালয়ের যুগ্মসচিব মো. জিয়াউর রহমান খান, মন্ত্রীর একান্ত সচিব মো. আবদুল ওয়াহেদ, শিল্প প্রতিমন্ত্রীর একান্ত সচিব শাহ্ মোমিন, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের পরিচালক ওয়াহিদা মুসাররত অনীতা, শিল্প মন্ত্রণালয়ের উপপ্রধান তথ্য অফিসার মো. আবদুল জলিল।

বৈঠকে শিল্পমন্ত্রী বলেন, বর্তমান সরকারের মেগা প্রকল্প বাস্তবায়নের ফলে বাংলাদেশে বিপুল পরিমাণ বৈদেশিক শ্রমশক্তি কাজ করছে। সে সঙ্গে পর্যটন শিল্পেরও দ্রুত বিকাশ ঘটছে। এতে করে ফুড এবং বেভারেজ পণ্যের চাহিদা দিন দিন বাড়ছে।

শিল্পমন্ত্রী রাষ্ট্রায়ত্ত চিনি ও খাদ্য শিল্প করপোরেশনের সঙ্গে যৌথ বিনিয়োগে বাংলাদেশে বেভারেজ শিল্প স্থাপনের পরামর্শ দেন। কৃষিভিত্তিক এ শিল্পখাতে বিনিয়োগে এগিয়ে আসলে সরকারের পক্ষ থেকে সম্ভব সব ধরনের নীতি সহায়তা প্রদানের আশ্বাস দেন মন্ত্রী।

থাইবেভের কর্মকর্তারা জানান, ঐতিহ্যবাহী এ বেভারেজ কোম্পানি থাইল্যান্ডের পাশাপাশি চীন, মিয়ানমার, মালয়েশিয়া, স্কটল্যান্ড, সিঙ্গাপুরসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে ফুড ও বেভারেজ শিল্পে বিনিয়োগ করেছে । এর উৎপাদিত অ্যালকোহলিক পণ্যের পাশাপাশি পানি, সোডা, গ্রিন টিসহ অন্যান্য নন-অ্যালকোহলিক পণ্য বাজারে অত্যন্ত জনপ্রিয়। তারা অন্যান্য দেশের বিনিয়োগের অভিজ্ঞতার আলোকে বাংলাদেশের ফুড ও বেভারেজ শিল্পখাতে বিনিয়োগের আশা প্রকাশ করেন।

পরে শিল্পমন্ত্রী থাইবেভের বিভিন্ন পণ্য উৎপাদন প্রক্রিয়া সরেজমিনে পরিদর্শন করেন। এ সময় সফরকারী প্রতিনিধিদলের সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

এসআই/জেএইচ/জেআইএম